১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়ে সাফ হয়ে গিয়েছে অযোধ্যায় রাম মন্দির তৈরির রাস্তা। সর্বোচ্চ আদালত অযোধ্যার বিতর্কিত জমির মালিকানা রামলালাকে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। একই সঙ্গে বিকল্প হিসেবে মসজিদ তৈরির জন্য সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডকে অন্যত্র পাঁচ একর জমি দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। এই রায়কে হিন্দু সম্প্রদায় নিজেদের জয় হিসেবেই দেখছে। তবে, সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ের কৃতিত্ব যাতে বিজেপি না পায়, তা নিশ্চিত করতে এদিন সকাল থেকেই আসরে নামে শিব সেনা। দলের নেতা উদ্ধব ঠাকরের দাবি, অযোধ্যা মামলার রায় সুপ্রিম কোর্টের। এই রায়ের কৃতিত্ব বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্র সরকার দাবি করতে পারে না।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রিত্ব নিয়ে বিজেপি-শিব সেনার মধ্যে তিক্ততা দিন দিন বাড়ছে। প্রায় প্রতিদিনই নতুন নতুন ইস্যুতে বিজেপিকে আক্রমণ শানাচ্ছে সেনা। অযোধ্যার রায় ঘোষণার পর তাঁর কৃতিত্ব বিজেপি দাবি করতে পারে, এই আশঙ্কা থেকে এদিন সকালেই আসরে নামেন উদ্ধব ঠাকরে। তিনি মন্দির নির্মাণে বিজেপির ভূমিকার প্রশংসা তো করেনইনি উলটে সমালোচনা করেছেন। তিনি বলেন, “আমরা কেন্দ্রকে অনুরোধ করেছিলাম, একটি আইন এনে মন্দির তৈরি করা হোক। কিন্তু, সরকার তা করেনি। এখন যখন সুপ্রিম কোর্ট নিজের রায় দিচ্ছে, তখন সেই রায়ের কৃতিত্ব কেন্দ্র সরকার দাবি করতে পারে না।”

[আরও পড়ুন: সাফ রাম মন্দির তৈরির রাস্তা, বিতর্কিত জমির দখল পেল রাম জন্মভূমি ন্যাস]


উল্লেখ্য, বিজেপির পাশাপাশি রাম মন্দির আন্দোলনের অন্যতম ভাগীদার শিব সেনা। বাবরি মসজিদ ধ্বংস থেকে শুরু করে রামলালার, রাম মন্দির কমিটি গঠন সবেতেই সক্রিয় ভূমিকা আছে শিব সেনার। প্রয়াত বালাসাহেব ঠাকরে রাম মন্দির আন্দোলন এবং বাবরি মসজিদ ধ্বংসে অগ্রণী ভূমিকা নেন। সেসময় অবশ্য, বিজেপির সঙ্গে তিক্ততা ছিল না শিব সেনার। দুই দল একসঙ্গেই কাজ করেছে। কিন্তু, ইদানিং বিজেপি এবং শিব সেনার মধ্যেকার দূরত্ব তাৎপর্যপূর্ণভাবে বেড়েছে। দুই শরিকের তিক্ততার জন্যেই এখনও মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন করা সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং