BREAKING NEWS

১৫ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

জিএসটি নিয়ে কি এই ভুলগুলিই বোঝাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 2, 2017 2:44 pm|    Updated: July 2, 2017 3:58 pm

GST 'myth' creating uproar is far from reality, check it out

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পণ্য ও পরিষেবা কর বা জিএসটি চালু হওয়ার আগে থেকেই বিক্ষোভ জানাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। তাঁদের দাবি, নয়া কর ব্যবস্থায় তাঁদের একাধিক অসুবিধার সম্মুখীন হতে হবে। বইতে হবে ক্ষতির বোঝা। ইতিমধ্যে অনেকে ক্রেতাদেরও বোঝাচ্ছেন যে, নয়া ব্যবস্থায় জিনিসের দাম বেড়েও গিয়েছে। কিন্তু সত্যিই কি তাই? সত্যিই কি নতুন নিয়মে অসুবিধার মুখে পড়ছেন ব্যবসায়ীরা?

বাস্তব বলছে, যে কারণে ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্ধ, তা কিন্তু সত্যিই ক্ষোভের কারণ হওয়া উচিত নয়। বেশ কিছু ভুল ধারণার জন্যই এই ক্ষোভ-বিক্ষোভ। সম্প্রতি তাইই দূর করা হয়েছে কেন্দ্রের রাজস্ব সচিবের তরফে। যেমন-

ভুল ধারণা ১: ব্যবসায়ীরা মনে করছেন সমস্ত ইনভয়েস কমপিউটর জেনারেটেড হতে হবে। কমপিউটর মেইনটেনেন্সের জন্য খরচ বাড়বে।

সত্যিটা হল, ইনভয়েস মাত্রই যে তা কমপিউটর জেনারেটেড হতে হবে, তার কোনও বাধ্যবাধকতা নেই। সাধারণ(ম্যানুয়ালি)ইনভয়েস হলেও চলবে।

ভুল ধারণা ২: জিএসটি চালু হওয়ার পর ব্যবসা করতে গেলে ইন্টারনেট  সংযোগ আবশ্যক।

রাজস্ব বিভাগ জানাচ্ছে, শুধুমাত্র মান্থলি রিটার্ন ফাইল করার সময়ই ইন্টারনেট লাগছে। গোটা মাসে বাকি সময় যে ইন্টারনেট পরিষেবা লাগবেই, এরকম কোনও কথা নেই।

ভুল ধারণা ৩: প্রতি মাসে তিনবার করে রিটার্ন জমা দিতে হবে। তাতে খরচ ও হাঙ্গামা অনেক বেশি হবে।

বাস্তব কিন্তু তা নয়। বলা হয়েছে একটা রিটার্নই তিনটি অংশে ভাগ হচ্ছে। তার একটি ডিলারকে জমা দিতে হবে। বাকি দু’বার স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতেই তা সম্পন্ন হবে। সেক্ষেত্রে ব্যবসায়ীদের হ্যাপা অনেক কম।

ভুল ধারণা ৪: অনেক ব্যবসায়ীই বলছেন জিএসটি-র রেট ভ্যাটের থেকে অনেক বেশি। এই মর্মে পণ্য ও পরিষেবার দাম বেশিও চাওয়া হচ্ছে কোথাও কোথাও।

কিন্তু আসল ব্যাপার হল, এক্সাইজ ডিউটি-সব বেশ কিছু কর আগের ব্যবস্থায় লুকিয়ে ছিল। ফলে সেগুলি নজরে পড়ত না। এখন তো গোচরে আসছে বলেই আপাতভাবে করের হার বেশি মনে হচ্ছে। কিন্তু সত্যিই তা আগের থেকে বেশি নয়।

ভুলধারণা ৫: অনেক ব্যবসায়ী ভাবছেন, তাঁদের কাছে প্রভিশনাল আইডি আছে। যা দিয়ে এখন আর ব্যবসা চালানো যাবে না।

কেন্দ্র জানাচ্ছে, ব্যবসা বন্ধ করার কোনও দরকার নেই। প্রভিশনাল আইডি-ই ক্রমে ‘জিএসটি ইন’ নম্বরে পরিণত হবে।

DDuKNZlUQAQBO5o

এ কথা ঠিক যে, সঠিক পরিকাঠামো ও প্রচারের অভাবে জিএসটি সম্পর্কে ব্যবসায়ীদের অনেকের ধারণাই স্বচ্ছ নয়। ফলে তাঁরা নিজেরা ভয় পাচ্ছেন ও গ্রাহককেও ভয় পাইয়ে দিচ্ছেন। এর মধ্যেই সক্রিয় হয়েছে এক শ্রেণির ফড়েরা, যারা কৃত্রিম অবস্থা তৈরি করে বাজারে পণ্যের দাম বাড়ানোর চেষ্টা চালাচ্ছে। আর তাই সব ভুল ধারণা মেটাতে উদ্যোগ সরকারের। ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও যদি এ বিষয়ে সঠিক ধারণা তৈরি করে নেন, তাহলে জিএসটি নিয়ে কেউ আর আপনাকে ভুল বোঝাতে পারবে না।

ছবি: শুভাশিস রায়

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে