৭ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২১ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘কোন সরকারের আমলে গুজরাটে মুসলিম বিরোধী দাঙ্গা হয়েছিল?’, CBSE’র প্রশ্ন ঘিরে বিতর্ক

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 2, 2021 11:11 am|    Updated: December 2, 2021 4:34 pm

Controversial question in CBSE exam | Sangbad Pratidin

ফাইল ছবি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কোন সরকারের আমলে গুজরাটে (Gujarat) মুসলিম বিরোধী দাঙ্গা হয়েছিল? সিবিএসই-র পরীক্ষায় এল এমনই বিতর্কিত প্রশ্ন। আর এর জেরে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়ে গিয়েছে। যদিও কীভাবে এমন ‘বিতর্কিত’ প্রশ্ন এল তা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে সিবিএসই (CBSE)।

বুধবার ছিল সিবিএসই-র দ্বাদশ শ্রেণির সোসিওলজির (Sociology) প্রথম পত্রের পরীক্ষা। সেই পরীক্ষার নির্দিষ্ট প্রশ্ন ঘিরে তুমুল বিতর্ক। প্রশ্নে জানতে চাওয়া হয় গুজরাট দাঙ্গার সময় সেই রাজ্যে ক্ষমতায় কোন সরকার ছিল? প্রশ্নপত্রে লেখা হয়, “২০০২ সালে গুজরাটে নজিরবিহীন মুসলিম বিরোধী হিংসা কোন সরকারের আমলে হয়েছে?” উত্তরে চারটি বিকল্প দেওয়া হয়েছে, বিজেপি/কংগ্রেস/রিপাবলিক/ডেমোক্রেটিক। এই প্রশ্ন ঘিরে বিতর্ক দানা বেঁধেছে।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলা বদলে গিয়েছে’, মমতার মডেলের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা মুম্বইয়ের শিল্পপতিদের]

বিতর্কের মাঝেই টুইট করে সিবিএসই-র তরফে জানানো হয়, দ্বাদশ শ্রেণির সোসিওলজির টার্ম ওয়ান পরীক্ষায় একটি প্রশ্ন এসেছে, যা অনুপযুক্ত। প্রশ্ন ঠিক করার ক্ষেত্রে সিবিএসই-র যে নির্দিষ্ট নিয়মাবলী রয়েছে তা এক্ষেত্রে মেনে চলা হয়নি। ভুল স্বীকার করছে সিবিএসই। যে বা যারা এই প্রশ্নটির জন্য দায়ী, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

[আরও পড়ুন: বাড়ি বাড়ি পানীয় জল সরবরাহে দেশের মধ্যে শীর্ষে বাংলা, ‘জলস্বপ্ন’ প্রকল্পকে স্বীকৃতি কেন্দ্রের]

প্রসঙ্গত, ২০০২ সালে গুজরাটের গোধরায় সবরমতী এক্সপ্রেসের একটি কামরা জ্বালিয়ে দেওয়া হয়। অগ্নিদগ্ধ হয়ে অন্তত ৫৯ জন হিন্দু পুন্যার্থীর মৃত্যু হয়। এর পরই সে রাজ্যে হিংসা ছড়ায়। যেখানে প্রায় ১ হাজার জনের মৃত্যু হয়। ভারতের ইতিহাসে নজিরবিহীন এই হিংসার ঘটনায় তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও তাঁর নেতৃত্বাধীন সরকারের দিকে আঙুল তোলে বিরোধীরা। যদিও সিবিআইয়ের স্পেশ্যাল তদন্তকারী দল ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নরেন্দ্র মোদিকে ক্লিনচিট দিয়ে দেয়।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে