৫ শ্রাবণ  ১৪২৬  রবিবার ২১ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাস হোক বা ট্যাক্সি। ট্রেন কিংবা মেট্রো রেল। কোনও জায়গাতেই যে মহিলারা সুরক্ষিত নন, সেটাই আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল। এর আগে চলন্ত ট্রেনে বা বাসে হস্তমৈথুনের ঘটনা শিরোনামে উঠে এসেছে। এবার মেট্রো স্টেশনে হস্তমৈথুন করে এক মহিলার উপর বীর্যপাত করা হল। ঘটনায় ক্ষুব্ধ ও বিরক্ত ওই মহিলা নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছেন।

[আরও পড়ুন: বাবুল ও দেবশ্রীর শপথের সময় ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান, শুরুতেই বিতর্ক লোকসভায়]

মহিলা জানান, রাত তখন প্রায় সাড়ে ন’টা। গুরগাঁওয়ের হুডা সিটি সেন্টার মেট্রো স্টেশনের একটি চলন্ত সিঁড়ি দিয়ে নামছিলেন তিনি। হঠাৎই পিঠে তরল কিছু একটা পড়ে বলে মনে হয় তাঁর। ঘুরে দেখেন, এক ব্যক্তি হস্তমৈথুনের পর বীর্যপাত করছে। লজ্জায়-অপমানে মেজাজ হারিয়ে তাকে কষিয়ে থাপ্পড় মারেন ওই মহিলা। অভিযোগ, নিজের ভুল স্বীকার না করে উলটে মহিলাকে অশ্লীল ভাষায় আক্রমণ করে ওই ব্যক্তি। স্টেশনে উপস্থিত অন্যান্য যাত্রী গোটা ঘটনা দেখেও চুপ থাকেন। তাঁর কথায়, “আমি সাহায্যের জন্য চিৎকার করি। কিন্তু কেউ এগিয়ে আসে না। পুলিশও নয়।” এই সুযোগে সেখান থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত। এরপর মহিলা পুলিশ চৌকিতে অভিযোগ জানাতে এলে দেখেন তা বন্ধ। ফেসবুকের মাধ্যমে গোটা ঘটনা গুরুগ্রাম পুলিশকে জানান তিনি। কিন্তু কোনও উত্তর পাননি। তারপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ক্ষোভ উগরে দেন।

দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ট্যাগ করে একটি পোস্ট করেন মহিলা। তাঁর দাবি, বিনামূল্যে মেট্রো পরিষেবা চান না। তার চেয়েও বেশি জরুরি মহিলাদের নিরাপত্তার সুনিশ্চিত করা। তিনি লেখেন, “দিল্লির মতো জায়গায় মেট্রোই লাইফলাইন। সেখানে রোজ শত শত মহিলা যাতায়াত করছেন। মুখ্যমন্ত্রী বিনামূল্যে পরিষেবা চালু করেছেন মহিলাদের জন্য। কিন্তু যেটা বেশি দরকার, সেই নিরাপত্তাই দিতে পারছেন না। সাড়ে নটা কি অনেকটা রাত? আমরা তো বাইরে বেরতেই ভয় পাচ্ছি। অনেক প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু কোনওটাই পালন করেননি।” ঘটনার কথা জানাজানি হতেই নড়েচড়ে বসে গুরুগ্রাম পুলিশ। জানানো হয়েছে, অভিযুক্তর খোঁজ চলছে। শীঘ্রই তাকে গ্রেপ্তার করা হবে। মহিলার দাবি, মেট্রোয় নিরাপত্তার জন্য যে পরিকাঠামো প্রয়োজন, তা নেই। তাই বাড়ির বাইরে পা রাখলেই আতঙ্কে থাকতে হয় মহিলাদের।

[আরও পড়ুন: দীর্ঘ রাজনৈতিক সংগ্রামের স্বীকৃতি, লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা হচ্ছেন অধীর]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং