BREAKING NEWS

১৭ শ্রাবণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৩ আগস্ট ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Coronavirus: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অক্সিজেনের অভাবে কোনও কোনও মৃত্যু হয়নি দেশে, জানাল কেন্দ্র

Published by: Biswadip Dey |    Posted: July 20, 2021 10:07 pm|    Updated: July 27, 2021 6:54 pm

Health Ministry said no state reported any deaths due to lack of oxygen during the second wave of Covid-19 | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন‌ ডিজিটাল ডেস্ক: গত এপ্রিলে এক ভয়াবহ দুঃসময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছিল দেশ। করোনার (Coronavirus) দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়তেই প্রকট হয়ে উঠেছিল অক্সিজেন (Oxygen) ও হাসপাতালে বেডের অভাব। কিন্তু মঙ্গলবার কেন্দ্রের তরফে জানিয়ে দেওয়া হল, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ (Second Wave) আছড়ে পড়ার পর অক্সিজেনের অভাবে কোনও মৃত্যুর খবর তাদের কাছে নেই। পাশাপাশি এও জানিয়ে দেওয়া হল, স্বাস্থ্য রাজ্যের বিষয়।

এদিন রাজ্যসভায় একটি লিখিত প্রশ্নের উত্তরে এমনটাই জানিয়েছে কেন্দ্র। প্রশ্নটি করেছিলেন কংগ্রেস (Congress) সাংসদ কেসি বেণুগোপাল। ঠিক কী জানতে চেয়েছিলেন তিনি? করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রসঙ্গ তুলে তিনি লেখেন, ‘‘এটা সত্যিই যে, সেই সময় পথে ও হাসপাতালে বহু কোভিড (COVID-19) রোগীর মৃত্যু হয়েছিল অক্সিজেনের অভাবে।’’ গত তিন মাসে রাজ্যগুলির তরফে কেন্দ্রের কাছে কত পরিমাণ অক্সিজেন চাওয়া হয়েছিল সেপ্রসঙ্গে জানতে চেয়েছিলেন কংগ্রেস সাংসদ। সেই সঙ্গে তিনি দাবি করেন, করোনার তৃতীয় ঢেউ আছড়ে পড়লে ফের বহু রোগীর অক্সিজেনের প্রয়োজন পড়বে বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। সুতরাং এবার যেন আর অক্সিজেনের ঘাটতি না হয় তা নিশ্চিত করতে হবে কেন্দ্রকে।

[আরও পড়ুন: ‘সত্যিটা হজম করতে পারছে না Congress’, BJP সাংসদদের বৈঠকে বেনজির তোপ Modi’র]

এই প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়েই কেন্দ্রের তরফে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়, স্বাস্থ্য একান্তই রাজ্যের বিষয়। এবং নিয়মিত কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রককে কোভিডের দৈনিক সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হিসেব দেওয়া উচিত রাজ্যগুলির। তবে সেই সঙ্গেই দাবি করা হয়, ‘‘যদিও অক্সিজেনের অভাবে কোনও মৃত্যুর কথাই রাজ্য বা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি জানায়নি।’’

তবে প্রথম ঢেউয়ের থেকে দ্বিতীয় ঢেউয়ের ক্ষেত্রে যে অক্সিজেনের চাহিদা অনেকটাই বেশি ছিল তা মেনে নিয়েছে কেন্দ্র। জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, প্রথমবার মাত্র ৩ হাজার ৯৫ মেট্রিক টন অক্সিজেনের চাহিদা ছিল। সেখানে দ্বিতীয় ঢেউয়ে তা প্রায় তিন গুণ হয়ে পৌঁছয় ৯ হাজার মেট্রিক টনের কাছাকাছি। সেই চাহিদা মেটাতে কী পদক্ষেপ করা হয়েছে তাও জানানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ‘বাঁচার অধিকার সবার উপরে’, ইদে লকডাউনে ছাড় নিয়ে কেরল সরকারকে ভর্ৎসনা সুপ্রিম কোর্টের]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement