BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জ্ঞানবাপী মসজিদের ‘শিবলিঙ্গ’ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য! গ্রেপ্তার হিন্দু কলেজের অধ্যাপক

Published by: Biswadip Dey |    Posted: May 21, 2022 12:34 pm|    Updated: May 21, 2022 12:41 pm

Hindu College professor arrested for post on Gyanvapi Mosque ‘Shivling’। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্পর্শকাতর জ্ঞানবাপী (Gyanvapi Mosque) মামলা নিয়ে দেশজুড়ে চর্চা চলছে। এর মধ্যেই জ্ঞানবাপী মসজিদের ওজুখানায় প্রাপ্ত ‘শিবলিঙ্গ’ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় গ্রেপ্তার করা হল দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের হিন্দু কলেজের (HIndu Mandir) সহকারী অধ্যাপক রতন লালকে। বৃহস্পতিবারই তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের হয়েছিল। এরপর ৫০ বছরের অধ্যাপককে ডেকে পাঠানো হয়েছিল জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। অবশেষে গ্রেপ্তার করা হল।

ঠিক কী অভিযোগ ইতিহাসের ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে? এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, গত মঙ্গলবার তিনি ওই ‘শিবলিঙ্গে’র একটি ছবি পোস্ট করেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সেখানেই তাঁকে ওই লিঙ্গ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করতে দেখা যায় বলে অভিযোগ। এরপরই তাঁকে ডেকে পাঠানো হয় থানায়। শুক্রবার রাতে রতন লালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে।

[আরও পড়ুন: দু’দিন সম্পূর্ণ বন্ধ ব্যান্ডেল স্টেশন, জেনে নিন ২৭ মে থেকে ৭২ ঘণ্টা কোন পথে চলবে ট্রেন]

এই গ্রেপ্তারি ঘিরে ইতিমধ্যেই ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন অনেকে। বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনকে দেখা গিয়েছে থানার বাইরে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে। এদিকে রতন লালের পোস্টটি ভাইরাল হওয়ার পরে তাঁকে একটি ভিডিও-ও শেয়ার করতে দেখা গিয়েছে। সেখানে ওই অধ্যাপক জানিয়েছিলেন, অনলাইনে অনেকেই তাঁকে হুমকি দিয়েছে। পুলিশের কাছে নিজের নিরাপত্তার ব্যাপারে আরজি জানিয়েছিলেন তিনি। পরে অবশ্য তাঁর নামেই এফআইআর দায়ের হয়। একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়েছে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে।

গত বুধবারই এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় রতন লাল তাঁর বিরুদ্ধে শুরু হওয়া বিতর্ক সম্পর্কে বলতে গিয়ে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন, ”আমি ভাবতে পারিনি ওই মন্তব্যের জন্য এত হুমকির সামনে পড়তে হবে। হিন্দু ধর্মের সমালোচকদের এক দীর্ঘ ধারা রয়েছে। ফুলে, রবিদাস ও আম্বেদকরের কথা বলতে পারি। এখানে তো আমি সমালোচনাও করিনি। স্রেফ একটা পর্যবেক্ষণ। আমাদের দেশে সব কিছুতেই ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত লেগে যায়। মানুষ কী করবে, মুখে ব্যান্ডেজ বেঁধে ঘুরে বেড়াবে?”

[আরও পড়ুন: ‘ভেবেছিলাম বেঁচে আছে পল্লবী’, থানায় জেরার মুখে পুলিশকে বললেন প্রেমিক সাগ্নিক]

প্রসঙ্গত, ২০২১-এর আগস্টে পাঁচ হিন্দু মহিলা জ্ঞানবাপীর ‘মা শৃঙ্গার গৌরী’ (ওজুখানা ও তহখানা নামে পরিচিত) এবং মসজিদের অন্দরের পশ্চিমের দেওয়ালে দেবদেবীর মূর্তির অস্তিত্বের দাবি করে তা পূজার্চনার অনুমতি চেয়েছিলেন বারাণসী আদালতে। সেই মামলায় কয়েকদিন আগেই বারাণসী আদালতের নির্দেশে জ্ঞানবাপী মসজিদের ভিতরে শুরু হয়েছিল ভিডিও সার্ভে। এরপরই সামনে আসে শিবলিঙ্গটি। শুক্রবার মামলার শুনানি শেষে জ্ঞানবাপী মামলাটি নিম্ন আদালতেই ফিরিয়ে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। সেই সঙ্গে জানিয়ে দিয়েছে, আপাতত সিল থাকবে মসজিদের ওজুখানা। তবে নমাজপাঠ করতে যাঁরা আসবেন, তাঁদের জন্য অন্য ব্যবস্থা করে দিতে হবে বলেও জানিয়েছে শীর্ষ আদালত।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে