BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এবার আসরে অমিত শাহ! রাজস্থান কাণ্ডে রাজ্যের কাছে রিপোর্ট চাইল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 19, 2020 8:57 am|    Updated: July 19, 2020 9:08 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজস্থান অডিও টেপ কাণ্ডে এবার আসরে নামলেন খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। পুরো ঘটনাক্রম নিয়ে রাজস্থান সরকারের কাছে রিপোর্ট চাইল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। এদিকে, গতকালই ১০২ জন বিধায়কের সমর্থন দাবি করে রাজ্যপাল কলরাজ মিশ্রর দ্বারস্থ হয়েছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট (Ashok Gehlot)।

রাজস্থানের টালমাটাল রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে নতুন মাত্রা যোগ করেছে দুটি অডিও টেপ। কংগ্রেসের (Congress) দাবি, ভাইরাল ওই অডিও টেপে স্পষ্ট প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে যে, রাজস্থানের এক শীর্ষ বিজেপি নেতা এবং কেন্দ্রীয় জলশক্তি মন্ত্রীর সঙ্গে সরকার ফেলার দর কষাকষি করছে দুই দলীয় বিধায়ক। এর ভিত্তিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গজেন্দ্র সিং শেখাওয়াতের (Gajendra Singh Shekhawat) নামে এফআইআরও করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শেখাওয়াত আবার সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁর স্পষ্ট দাবি, অডিও টেপে যে কণ্ঠস্বর শোনা যাচ্ছে, সেটা তাঁর নয়। প্রয়োজনে তদন্তে সবরকম সহযোগিতা করতে তিনি রাজি। যদিও, টেপে যে দুই কংগ্রেস বিধায়কের কথা উল্লেখ করা হয়েছে, তাঁরা নিজেদের ভয়েস স্যাম্পল দিতে অস্বীকার করেছেন।

[আরও পড়ুন: গেহলট সরকারের বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ, সিবিআই তদন্তের দাবি বিজেপির]

এদিকে বিজেপির (BJP) অভিযোগ, রাজস্থানের কংগ্রেস সরকার বেআইনিভাবে বিরোধী শিবিরের ফোন ট্যাপ করছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক রাজস্থান সরকারের কাছে রিপোর্ট চেয়েছে বলে দাবি সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের রিপোর্ট চাওয়ার অর্থ খোদ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর রাজস্থান রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে ঢুকে যাওয়া। যা কিনা এই পরিস্থিতিতে বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। এদিকে গতকালই মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট রাজ্যপাল কলরাজ মিশ্রর সঙ্গে দেখা করেছেন। ভারতীয় ট্রাইবাল পার্টির দুই বিধায়ক পুনরায় সরকারকে সমর্থনের কথা ঘোষণা করার পরই রাজ্যপালের কাছে যান তিনি। প্রায় ৪৫ মিনিট বৈঠক হয় দু’জনের। সূত্রের খবর, গেহলট রাজ্যপালের কাছে দাবি করে এসেছেন সরকার বাঁচানোর উপযুক্ত সংখ্যা তাঁর কাছে আছে। এখনও ১০২ জন বিধায়ক তাঁর শিবিরকে সমর্থন করছেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement