BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘লালফৌজের অকথ্য অত্যাচার জীবনে ভুলব না’, বলছেন মুক্তি পাওয়া অরুণাচলের যুবক

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: September 16, 2020 9:22 pm|    Updated: September 16, 2020 9:22 pm

How chinese army tortured Indian citizen, Arunachal youth tells his experience । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কিছুদিন আগে অরুণাচলের পাঁচ যুবককে ভারতের মাটি থেকে অপহরণ করেছিল চিনের সেনা। প্রথমে বিষয়টি অস্বীকার করলেও পরে নয়াদিল্লির চাপে তাঁদের ছেড়ে দিতে বাধ্য হয় শি জিনপিংয়ের প্রশাসন। এই বিষয়টি নিয়ে টানাপোড়েনের মাঝেই গত এপ্রিলে লালফৌজের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া অরুণাচল প্রদেশ (Arunachal Pradesh) -এর এক যুবক জানালেন তাঁর ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা।

ভারত-চিন সীমান্ত সংলগ্ন অরুণাচলের আপার সুবানসিরি জেলার টাকসিং এলাকার বাসিন্দা ২১ বছরের ওই যুবকের নাম টোগলে সিংকাম (Togley singkam)। কুলির কাজ করে জীবনযাপন করা ওই দরিদ্র যুবক গত ১৯ মার্চ সীমান্ত এলাকায় ভারতীয় সেনাবাহিনীর কিছু জিনিস পৌঁছে দেওয়ার পর পাশের একটি জঙ্গলে শিকারের সন্ধানে গিয়েছিলেন। তাঁর সঙ্গে ছিল আরও চার জন যুবক। কিছুটা দূর যাওয়ার পরেই তাঁদের অপহরণ করে লালফৌজ। তারপর নিজেদের ক্যাম্পে নিয়ে গিয়ে অকথ্য অত্যাচার চালায়।

[আরও পড়ুন: ‘ক্রোনোলজিটা বুঝুন’, চিন ইস্যু নিয়ে ফের মোদি সরকারকে খোঁচা রাহুলের ]

ভয়াবহ সেই দিনগুলির কথা স্মরণ করে টোগলে বলেন, ‘অন্যদিনের মতো ওই দিনও ভারতীয় ভূখণ্ডেই ছিলাম আমরা। কিন্তু, জোর করে চিনের সেনাকর্মীরা আমাদের মুখে কাপড় ঢাকা দিয়ে সীমান্তের ওপারে থাকা নিজেদের ক্যাম্পে নিয়ে যায়। সেখানে পৌঁছনোর পর চোখ খুলে দিয়ে জোর করে মাটিতে বসিয়ে হাতদুটি গলার পিছন দিয়ে বেঁধে দেয়। পরে একটি খাটে বেঁধে রেখে বেধড়ক মারধর করতে থাকে। টানা ১৫ দিন অন্ধকার একটি ঘরের মধ্যে থাকা চেয়ারে বসিয়ে আমার হাত-পা টাইট করে বেঁধে রেখেছিল। সারাদিন দিন বেধড়ক মারধরও করত। এমনকী ঘুমোতে গেলে ইলেকট্রিক শক দিত। আমি যাতে ভারতীয় গুপ্তচর বলে নিজেকে স্বীকার করি তার জন্য সবরকমের অত্যাচার করত। ওইদিনগুলোর কথা জীবনে ভুলতে পারব না।’

[আরও পড়ুন: দেশের ৪০ শতাংশ মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েও দিব্যি সুস্থ, বলছে ICMR-এর সমীক্ষা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে