৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাতীয় নিরাপত্তার প্রয়োজনে সোশ্যাল মিডিয়ায় নজরদারি চালানোর দাবি আগেই তুলেছিল কেন্দ্র। যদিও, পরে সেই দাবি থেকে অনেকটাই পিছিয়ে আসতে হয়েছে নরেন্দ্র মোদি সরকারকে। তাই এবার বিকল্প পথের ভাবনা শুরু করেছে প্রশাসন। জাতীয় নিরাপত্তার খাতিরে প্রয়োজনে সোশ্যাল মিডিয়ার নির্দিষ্ট কিছু অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দিতে চায় সরকার। ইতিমধ্যেই তা নিয়ে প্রাথমিক পদক্ষেপ নিয়েও নিয়েছে মোদি সরকার। জাতীয় নিরাপত্তার জন্য বা জরুরি অবস্থায় যদি ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রাম বা টেলিগ্রামের মতো সোশ্যাল অ্যাপগুলিকে ব্লক করার প্রয়োজন হয়, তা কীভাবে করা যাবে, তাঁর জন্য কী ধরণের প্রযুক্তি প্রয়োজন তা ইতিমধ্যেই জানতে চেয়েছে কেন্দ্র।

[ফের দুর্দান্ত অফার আনল জিও, গ্রাহকদের দৈনিক ২ জিবি অতিরিক্ত ডেটা উপহার]

ভারত সরকারের টেলি যোগাযোগ দপ্তর গত ১৮ জুলাই দেশের সব টেলিকম অপারেটর, ইন্টারনেট পরিষেবা প্রদানকারী সংস্থা, এবং সেলুলার অপারেটার্স অ্যাসোসিয়েশনকে চিঠি দিয়েছে। চিঠিতে জানতে চাওয়া হয়েছে কীভাবে প্রয়োজনে অ্যাপগুলি বন্ধ করা যাবে। সংস্থাগুলিকে জানানো হয়েছে, ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি আইনের 69A ধারা অনুযায়ী নিরাপত্তার প্রয়োজনে সোশ্যাল অ্যাপগুলিকে বন্ধ করতে কোনও বাধা নেই। টেলি যোগাযোগ দপ্তরের তরফে এও জানানো হয়েছে, যেভাবে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ এবং ইনস্টাগ্রামের মতো অ্যাপগুলির অপব্যবহার করা হচ্ছে তাতে তথ্য প্রযুক্তি এবং নিরাপত্তা সংক্রান্ত এজেন্সিগুলি বেশ চিন্তিত।

[ভিড় রাস্তায় বাইক নিয়ে যাবেন কীভাবে? খোঁজ দেবে গুগল ম্যাপ]

আসলে দেশজুড়ে ভুয়ো খবর বা গুজবের জেরে একের পর এক গণপিটুনির ঘটনা ঘটছে। আর সেই গুজবগুলির বেশিরভাগটাই ছড়াচ্ছে ফেসবুক বা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে। আর এতে বেশ চিন্তিত কেন্দ্রীয় টেলিকম দপ্তর। টেলিকম দপ্তরের তরফে ইতিমধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপকে সতর্ক করা হয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপের তরফেও  গুজব বা ফেক নিউজ রুখতে বেশ কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কিন্তু সূত্রের খবর, হোয়াটসঅ্যাপের করা পদক্ষেপে পুরোপুরি সন্তুষ্ট হতে পারছ না কেন্দ্র। তাই এই সমস্যার একটি পাকাপাকি সমাধান চাইছে সরকার। নির্দিষ্ট কিছু অ্যাপ ব্লক করার মাধ্যমে সমস্যা অনেকটাই মিটতে পারে বলে আশাবাদী টেলিকম মন্ত্রক।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং