BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

ধ্বংস হল না সামন্ত সংস্কৃতি! বিদায়ী বার্তায় বিতর্ক উসকে দিলেন প্রধান বিচারপতি

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: November 17, 2021 8:26 pm|    Updated: November 17, 2021 8:47 pm

I Could Not Completely Demolish Feudal Culture Farewell Message of Justice Sanjib Banerjee | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক’ দিন আগেই মাদ্রাজ হাইকোর্টের (Madras High Court) প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Justice Sanjib Banerjee) বদলির নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে তুলনামূলক কম গুরুত্বপূর্ণ মেঘালয় হাইকোর্টে (Meghalaya High Court) বদলি করা হয়েছে। এরপরই এই বদলির নির্দেশ নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়। এর মধ্যেই আজ প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর বিদায়ী চিঠিতে বিতর্ক উসকে দিলেন। লিখলেন, “আপনারা যে সামন্ততান্ত্রিক সংস্কৃতির মধ্যে রয়েছেন, তা সম্পূর্ণভাবে ধ্বংস করতে পারলাম না। আমার আফসোস রয়ে গেল! ”

প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্মানে আজ একটি বিদায় সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছিল মাদ্রাজ হাইকোর্টের বার অ্যাসোসিয়েশনে। যদিও সশরীরের উপস্থিত থাকতে পারেননি তিনি। তবে সহকর্মীদের উদ্দেশে একটি চিঠি লিখে যান। সেখানেই লেখেন, “আপনাদের মধ্যে কয়েকজন হয়তো আমার কাজে রাগ করেছেন। কিন্তু আপনারা মনে রাখবেন, আমার কোনও কাজই ব্যক্তিগত ছিল না। ওই আসনে বসে, এই প্রতিষ্ঠানের জন্য যা ঠিক মনে হয়েছে, সেটাই আমি করে গিয়েছি।”

[আরও পড়ুন: ‘পাঁচতারা হোটেলে বসে কৃষকদের গালমন্দ নয়’, দিল্লি দূষণ প্রসঙ্গে মন্তব্য সুপ্রিম কোর্টের]

মাদ্রাজ বার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের প্রতিও বিদায়ী বার্তা দিয়েছেন প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়।চিঠিতে লিখেছেন, “দেশের সবথেকে ভাল আইনজীবীদের মধ্যে আপনারা অন্যতম। আমার মতো একজন বৃদ্ধ, কলহপ্রবণ বিচারপতির কথা ধৈর্য ধরে শুনে এসেছেন। আমাকে যথাযথ সম্মান দিয়েছেন।”

গত ১৬ সেপ্টেম্বরে সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়ামের বৈঠকে মাদ্রাজ হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে মেঘালয় হাইকোর্টে বদলির সুপারিশ করা হয়। যদিও সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের বদলি যাতে না হয়, তার জন্য সম্প্রতি মাদ্রাজ হাইকোর্টের দুশো জনেরও বেশি আইনজীবী সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এন ভি রামন এবং কলেজিয়ামের অন্য চার সদস্যকে চিঠি লিখে আবেদন জানায়।

[আরও পড়ুন:  উত্তরপ্রদেশের মসনদে ফের যোগীই! জনমত সমীক্ষায় উঠে এল ইঙ্গিত]

সাম্প্রতিককালে বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায় এমন একাধিক রায় দিয়েছেন, যে রায় সরকারের পক্ষে যায়নি। বেশ কয়েকটি মামলায় সরকারি সংস্থাকে কড়া ভাষায় ভর্ৎসনা করেন। কোভিডের মধ্যে নির্বাচন প্রসঙ্গে কড়া সমালোচনা করেছিলেন নির্বাচন কমিশনের। বলেছিলেন, খুনের মামলা করা উচিত কমিশনের বিরুদ্ধে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে