BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নজরে চিন-নেপাল, উত্তরাখণ্ডের সীমান্তবর্তী তিন জেলায় এবার বসবে এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: September 12, 2020 4:43 pm|    Updated: September 12, 2020 11:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ একে চিনে (China) রক্ষে নেই, সঙ্গে দোসর নেপাল (Nepal)। প্রতিবেশী এই দেশটিও সম্প্রতি বেশ খানিকটা ভারতীয় (India) ভূখণ্ডকে নিজেদের বলে দাবি করেছে। এমনকী মানচিত্রে পরিবর্তন এনে তা সংসদে পাশও করিয়ে নিয়েছে। তাই এবার এই দুই দেশকে চাপে রাখতে উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) সীমান্তবর্তী তিন জেলায় এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম (Air Defence System) বসাতে চলেছে ভারতীয় বায়ুসেনা। সঙ্গে তৈরি করা হবে অ্যাডভান্স ল্যান্ডিং গ্রাউন্ড। কারণ নেপাল এবং চিন দুই দেশের সঙ্গেই উত্তরাখণ্ডের সীমানা রয়েছে। নেপালের ভারতীয় আকাশ সীমায় ঢুকে হামলা চালানোর মতো শক্তি না থাকলেও, চিনের রয়েছে। আর তাই ভারতীয় বায়ুসেনার এই উদ্যোগ।

[আরও পড়ুন: উদ্ধব ঠাকরের কার্টুন ফরোয়ার্ড করার ‘শাস্তি’, প্রাক্তন নৌসেনা কর্তাকে মারধর শিব সেনা কর্মীদের]

গত শুক্রবার রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াতের সঙ্গে বৈঠকে বসেন এয়ার মার্শাল রাজেশ কুমার–সহ বায়ুসেনার অন্যান্য আধিকারিকরা। সেখানেই তাঁরা সীমান্তবর্তী তিন জেলা চামোলি, পিথোরগড় এবং উত্তর কাশী জেলায় এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম বসানোর জন্য জমি চেয়েছেন। বায়ুসেনার সেই প্রস্তাব মেনেও নিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সীমান্তের বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে দ্রুত কাজ শেষ করতে চায় দু’‌পক্ষই। আর তাই বৈঠকে ঠিক হয়েছে, দু’‌তরফে একজন করে নোডাল অফিসার নিয়োগ করা হবে। তাঁরা একসঙ্গে কাজটি সম্পন্ন করবেন।

[আরও পড়ুন: আত্মহত্যার চেষ্টা কি শাস্তিযোগ্য অপরাধ? কেন্দ্রের কাছে সুস্পষ্ট জবাব চাইল সুপ্রিম কোর্ট]

এছাড়া বৈঠকে বায়ুসেনার (Indian Air Force) তরফে একটি অ্যাডভান্স ল্যান্ডিং গ্রাউন্ড, চৌকুঠিয়াতে নতুন বিমানঘাঁটি তৈরি এবং পাটনানগর, জলি গ্রান্ট ও পিথোরগড় বিমানবন্দরের সম্প্রসারণের দাবিও জানানো হয়। এদিকে, এয়ার ডিফেন্স সিস্টেম বসানোর জন্য আপাতত একটি জায়গাও দেখা হয়েছে। বাকি জায়গাগুলোও খুব শীঘ্রই বেছে নিয়ে জমি অধিগ্রহণ করা হবে। বৈঠকে বায়ুসেনার আধিকারিককে এমনটাই জানানো হয়েছে উত্তরাখণ্ড সরকারের পক্ষ থেকে।

[আরও পড়ুন: পুজোর আগে লোকাল ট্রেন চলার সম্ভাবনা কার্যত নেই, হতাশার কথা শোনাল দক্ষিণ-পূর্ব রেল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement