BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘বিজেপিতে যোগ দিচ্ছি না, আমি এখনও কংগ্রেস সদস্য’, ‘ভোলবদল’ পাইলটের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: July 15, 2020 10:17 am|    Updated: July 15, 2020 10:17 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই ভোলবদল! দল এবং সরকারের যাবতীয় পদ থেকে বরখাস্ত হওয়ার পরও বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন না রাজস্থানের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী শচীন পাইলট (Sachin Pilot)। দলের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহ’ ঘোষণার পর এই প্রথম সংবাদমাধ্যমে মুখ খুললেন তরুণ ‘কংগ্রেস’ নেতা। আর মুখ খুলে দল তথা গান্ধী পরিবারের প্রতি আনুগত্যের সুরই শোনালেন তিনি।

[আরও পড়ুন: পাইলট ‘বিদায়ে’র জের! গান্ধীদের বিরুদ্ধে জেহাদের সুর কংগ্রেসে]

বুধবার এক সর্বভারতীয় সংবাদমাদ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পাইলট বলেছেন,”আমি এখনও একজন কংগ্রেস (Congress) কর্মী। বিজেপিতে যোগ দিচ্ছি না। বিজেপির (BJP) সঙ্গে নাম জুড়ে দিয়ে আমাকে বদনাম করার চেষ্টা করা হচ্ছে। গান্ধী পরিবারের (Gandhi Family) সদস্যদের নজরে আমাকে ছোট দেখানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।” এদিন সকালে পাইলটের একটি সাংবাদিক বৈঠক করার কথা ছিল, সেটিও বাতিল করেছেন তিনি। তারপর থেকেই রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন, তাহলে কি কংগ্রেসেই থেকে যেতে চান রাজস্থানের এই লড়াকু নেতা? পাইলট অবশ্য জানিয়েছেন, নিজের পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তিনি নেননি। অনুগামীদের সঙ্গে কথা বলেই পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে একটা জিনিস নিশ্চিত, বিজেপিতে তিনি যোগ দেবেন না।

[আরও পড়ুন: বিজেপিতে যেতে নারাজ অনুগামীরা! শচীন পাইলটের রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা]

দলের বিরুদ্ধে ‘বিদ্রোহ’ ঘোষণা করলেও শুরু থেকেই শচীন পাইলট বিজেপি যোগের বিষয়টি অস্বীকার করে এসেছেন। বারবার তাঁর অনুগামীরা প্রকাশ্যে জানিয়েছেন, তাঁরা বা পাইলট নিজে বিজেপিতে যোগ দেবেন না। তাঁরা কংগ্রেসে থেকেই সম্মানের সঙ্গে কাজ করতে চান। কিন্তু গতকাল কংগ্রেস পাইলটকে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি এবং রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরই তাঁর দলত্যাগ নিয়ে জল্পনা শুরু হয়ে যায়। অনেকেই মনে করছিলেন, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পথ ধরে তিনিও বিজেপিতে যোগ দেবেন। কিন্তু সে সম্ভাবনা নিজেই খারিজ করলেন তরুণ গুর্জর নেতা। যার ফলে আপাতত তাঁর সামনে খোলা রইল দুটি রাস্তা। এক কংগ্রেসে ফিরে এসে গান্ধী পরিবারের আনুগত্য স্বীকার করা। দুই, নিজের আলাদা দল তৈরি। তরুণ নেতা কোন পথে যান সেটাই এখন দেখার।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement