১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সেনার বৈঠকে গলল বরফ, গোগরা হটস্প্রিং থেকে সেনা সরানোর সিদ্ধান্ত ভারত ও চিনের

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: September 8, 2022 6:58 pm|    Updated: September 8, 2022 7:32 pm

India and China Troops Begin Disengagement From Key Standoff Point In Ladakh | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অবশেষে লাদাখ (Ladakh) সীমান্তের গোগরা হটস্প্রিং (Gogra-Hot Springs) থেকে সেনা সরানোর সিদ্ধান্ত নিল ভারত ও চিন (China)। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দুই দেশের সেনার ১৬ তম কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠকের পর যৌথ বিবৃতিতে একথা জানানো হয়েছে। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যে সেনা সরানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গিয়েছে। 

পূর্ব লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় চিন ও ভারতীয় সেনার মুখোমুখি সংঘর্ষের পর দুই দেশের সম্পর্কের অবনতি হয়। দু’পক্ষই বাড়তি সেনা মোতায়েন করে সীমান্তে। যদিও বরফ গলানোর জন্য দফায় দফায় সেনা কম্যান্ডার পর্যায়ের বৈঠকও চলে। শেষ পর্যন্ত সেই বৈঠকেই কাজ হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। এদিন সন্ধ্যায় চিন ও ভারত এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছে, “১৬ রাউন্ড ভারত-চিন কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠকের পর ৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ থেকে গোগরা হট স্প্রিং এলাকা থেকে ভারত ও চিন সেনা সরাতে শুরু করেছে। দু’দেশের সীমান্ত এলাকায় শান্তি ও সৌভ্রাতৃত্ব বজায় রাখতে এই সিদ্ধন্ত নেওয়া হয়েছে।” উল্লেখ্য, গত জুলাই মাসের ১৭ তারিখ ১৬ রাউন্ড কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক হয় ভারত ও চিনে সেনা কর্তাদের মধ্যে। তার আগে মার্চে মাসে উভয়পক্ষ শান্তি আলোচনায় বসেছিল। তারপরেই এই সিদ্ধান্তের কথা জানা গেল।——–

[আরও পড়ুন: শৌচালয় পরিষ্কার করছে পড়ুয়ারা, ভাইরাল উত্তরপ্রদেশের স্কুলের ভিডিও, কাঠগড়ায় প্রধান শিক্ষক]

২০২০ সালের মে মাসে গালওয়ান উপত্যকায় সংঘর্ষের পরেই ভারত-চিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতি ঘটে। তারপর থেকেই লাদাখ সীমান্তের সমস্যাও গুরুতর আকার ধারণ করেছে। বারংবার বৈঠকে বসেও কোনও সমাধানসূত্র মিলছিল না। এদিকে ১৫-১৬ সেপ্টেম্বর সমরখন্দে (Samarkhand) হতে চলা এসসিও (SCO) সম্মেলনের ফাঁকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) ও চিনের (China) প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের (Xi Jinping) মধ্যে বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। ২০১৯-এর ১৩ নভেম্বরের পর দুই নেতার মধ্যে সরাসরি দেখা হয়নি।

[আরও পড়ুন: ‘ভুয়ো মামলায় ফাঁসানোর হুমকি দিচ্ছে মুসলিমরা’, ভয়ে গ্রাম ছাড়তে হল বিলকিসের ধর্ষকদের!]

যদিও গত ৭ জুলাই বালিতে অনুষ্ঠিত হওয়া জি-২০ (G-20) সম্মেলনে চিনা প্রতিপক্ষ ওয়াং ওয়াইয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন জয়শংকর। সেখানে লাদাখ সীমান্তের উত্তেজনা প্রশমনে উভয়ের মধ্যে কথা হয়েছিল বলে জানা গিয়েছিল। যদিও এরপরেও উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক সীমান্তে লাল ফৌজের আগ্রাসন অব্যাহত ছিল। এই অবস্থায় মোদি-শি জিনপিং বৈঠক সদার্থক হওয়ার দিকে তাকিয়ে আন্তর্জাতিক মহল। ২০১৭-র ৭ জুলাই হামবুর্গে জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনের ফাঁকে মোদি-জিনপিংয়ের বৈঠকে সেই সময়কার ডোকলাম সম‌স‌্যার সমাধান হয়েছিল। এবার এসসিও (SCO) সম্মেলনের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির যোগ দেওয়ার আগেভাগে গোগরা হট স্প্রিং দুই দেশের সেনা সরানোর সিদ্ধান্ত ইঙ্গিতবাহী বলেই মনে করছে আন্তর্জাতি কূটনৈতিক মহল।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে