BREAKING NEWS

২৪  মাঘ  ১৪২৯  বুধবার ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

মিসাইল কেনা হবেই, বন্ধু রাশিয়ার পাশে দাঁড়িয়ে আমেরিকাকে বার্তা ভারতের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 26, 2019 9:41 am|    Updated: June 26, 2019 9:41 am

India can not jeopardize ties with Russia, say sources

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মঙ্গলবার রাতে বিশেষ বিমানে নয়াদিল্লিতে নামলেন মার্কিন বিদেশ সচিব মাইক পম্পেও। আমেরিকার কৌশলগত মিত্র, আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে অভিন্নহৃদয় বন্ধু ভারতরে সঙ্গে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে দ্রুত আলোচনা সেরে নিতে পম্পেওকে দিল্লি পাঠিয়েছেন ট্রাম্প।

[আরও পড়ুন: ক্ষমতাবদলের পর কি যুদ্ধের পথে ব্রিটেন? হান্টের মন্তব্যে তুঙ্গে জল্পনা]  

ইরান সংকট, আফগানিস্তান সমস্যা, পাক সন্ত্রাস, রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের অস্ত্র লেনদেন বন্ধ করা, বাণিজ্য শুল্ক-সহ একগুচ্ছ বিষয় নিয়ে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের সঙ্গে তাঁর আলোচনা হবে। তবে পম্পেওর কাছে বিদেশনীতি পরিষ্কার করে দিল দিল্লি। ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক সাফ জানাল, আমেরিকা নিষেধাজ্ঞার ভয় দেখালেও রাশিয়ার সঙ্গে প্রতিরক্ষা চুক্তি থেকে সরে আসার প্রশ্নই নেই। আগামী দিনে রাশিয়ার সঙ্গে ৫০০ কোটি ডলারের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী চুক্তি (এস-৪০০ ট্রায়াম্ফ ক্ষেপণাস্ত্র) করতে চলেছে ভারত। সেই চুক্তি সময়মতো কার্যকর করা হবে। ভারত সরকারের একটি সূত্রের বক্তব্য, প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে আমাদের সঙ্গে বহুদিন ধরে রাশিয়ার সুসম্পর্ক আছে। আমরা সেই সুসম্পর্ক নষ্ট করতে চাই না। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর জানিয়েছেন, ইতিবাচক মনোভাব নিয়েই পম্পেও-র সঙ্গে বৈঠকে বসবেন। সব ইস্যু নিয়েই সদর্থক আলোচনা হবে। কয়েক দশক ধরেই রাশিয়া থেকে অস্ত্র কেনে ভারত। সম্প্রতি রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ট্রায়াম্ফ দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র কেনার কথা চলছে। সেই ক্ষেপণাস্ত্র ৪০০ কিলোমিটার দূরে পর্যন্ত একসঙ্গে অনেকগুলি ক্ষেপণাস্ত্রের হামলাকে রুখে দিতে পারে। এদিকে, হোয়াইট হাউসের নয়া প্রেস সচিব হলেন স্টেফানি গ্রিশ্যাম।

উল্লেখ্য, পড়শিদের বাগে আনতে প্রয়োজন এস-৪০০। পাকিস্তানের কাছে প্রায় ২০ স্কোয়াড্রন মার্কিন এফ-১৬ বিমান রয়েছে। চিনের থেকেও বিপদের আশঙ্কা দিন-দিন বাড়ছে। ফলে দেশের সুরক্ষায় এই হাতিয়ার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়াও রয়েছে আরও একটি কারণ, আমেরিকা থেকে অস্ত্র কিনলে অনেক শর্ত মানতে হবে। রাশিয়ার সঙ্গে সেরকম কোনও সমস্যা নেই। মস্কো পাশে থাকলে ভারতকে ঘটতে সাহস পাবে না চিনও। বিশেষজ্ঞদের মতে, সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে মেজাজি ট্রাম্প নয়, বিচক্ষণ পুতিনেই ভরসা রাখছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

[আরও পড়ুন: সাবানের বিজ্ঞাপনে নারীমুক্তির ছায়া! পাকিস্তানে রোষের মুখে মার্কিন কোম্পানি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে