Advertisement
Advertisement

Breaking News

চিনের বিরুদ্ধে তৈরি ভারত, হুঁশিয়ারি রামদেবের

যোগগুরুর উগ্র চিন বিরোধিতার উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন।

India fully prepared to take on China: Baba Ramdev
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:August 18, 2017 1:43 pm
  • Updated:August 18, 2017 1:43 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ডোকলাম উপত্যকা নিয়ে ভারত-চিনের মধ্যে টেনশনের চোরাস্রোত। এই আবহে চিনকে কার্যত হুঁশিয়ারি দিলেন রামদেব। যোগগুরুর মতে চিনের বিরুদ্ধে যে কোনও পরিস্থিতিতে ভারত তৈরি। রামদেব বুঝিয়ে দিয়েছেন চিন বাড়াবাড়ি করলে ফল ভাল হবে না। পাশাপাশি দেশবাসীকে চিনা পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছেন তিনি।

[এবার সাহায্যের জন্য সুষমার দ্বারস্থ সহকর্মী মানেকা গান্ধী]

চিনের নাম শুনলেই তিনি যেন তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠেন। ডোকলাম নিয়ে সাম্প্রতিক টানাপোড়েনে মেজাজ চড়েছে রামদেবের। লুধিয়ানায় এক অনুষ্ঠানে গিয়ে তিনি চিনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। বিতর্কিত এলাকায় প্রতিবেশী সেনার গতিবিধি দেখে রামদেবের ধারণা যুদ্ধের পরিস্থিতি তৈরি করতে চাইছে চিন। রামদেব জানান, চিন অস্ত্র, অর্থ, রসদ মজুত করতে পারে। তারা যতই চেষ্টা করুক না কেন, তাতে ভারতের ক্ষতি হবে না। ভারতবাসীর এতে চিন্তার কোনও কারণ নেই। ভারত এখন স্বয়ংসম্পূর্ণ। যাদের হাতে পর্যাপ্ত অস্ত্র আছে। রসদের অভাব নেই। সেনারাও তৈরি। চিনের সঙ্গে যুদ্ধের জন্য ভারত প্রস্তুত আছে বলে প্রতিবেশী দেশের প্রতি হুঙ্কার ছুড়েছেন যোগগুরু। রামদেবের কথায়, ভারতকে যোগ্য জবাব দেওয়ার সময় এসেছে। চিন যদি ভারতকে দুর্বল ভাবে তাহলে ভুল করবে। কোনও স্তরে ভারতের সমকক্ষ হতে পারবে না চিন। এর আগে চিনকে যুদ্ধবাজ বলে বিঁধেছিলেন রামদেব ।

Advertisement

[বাজারে আসছে ৫০ টাকার নয়া নোট, দেখুন ছবি]

লুধিয়ানার অনুষ্ঠানে কৌশলে রামদেব স্বদেশিয়ানা উসকে দিয়েছেন। রামদেবের মতে দেশকে যাঁরা ভালোবাসেন তাঁদের এখনই চিনা দ্রব্য বয়কট করা উচিত। চিনা দ্রব্য আটকানোর ব্যাপারে ভারত সরকারকে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আরজি জানিয়েছেন। ভারতের বিশাল বাজারকে কাজে লাগিয়ে চিন কেন টাকা লুটে নিয়ে যাবে তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন যোগগুরু। সমালোচকরা অবশ্য রামদেবের এই চিনা বিদ্বেষে অন্য গন্ধ পাচ্ছেন। তাঁদের অভিযোগ, নিজের সংস্থার পণ্যের বিক্রি বাড়াতে এই অবস্থান নিয়েছেন রামদেব। পরিকল্পিতভাবে তিনি এই কাজ করছেন। পাশাপাশি চিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদনেও প্রশ্ন উঠেছে। তাদের বক্তব্য, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মতো কথা বলছেন রামদেব। চিনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার বিষয় কি রামদেবের এক্তিয়ারের মধ্যে পড়ে? তাঁর উগ্র চিন বিরোধিতার উদ্দেশ্য নিয়েও তাই প্রশ্ন ওঠে। সমালোচকদের এই খোঁচার অবশ্য জবাব মেলেনি।

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ