২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

লাদাখ সীমান্তে মোতায়েন ‘নির্ভয়’, লালফৌজের উপর অগ্নিবর্ষণ করবে এই ক্ষেপণাস্ত্র

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: October 1, 2020 2:36 pm|    Updated: October 1, 2020 2:36 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ‘ড্রাগন’কে উচিত শিক্ষা দিতে লাদাখ সীমান্তে (LAC) ‘নির্ভয়’ মিসাইল মোতায়েন করল ভারত। আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও ফৌজে অন্তর্ভুক্তি হয়নি ক্ষেপণাস্ত্রটির। কিন্তু হানাদার চিনা বাহিনীকে জবাব দিতে অন্তর্ভুক্তির আগেই বেশ কয়েকটি মিসাইল ইউনিট প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় মোতায়েন করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী (Indian Army)।

[আরও পড়ুন: আরও একদফা সামরিক বৈঠকে রাজি ভারত-চিন, সীমান্তে এখনও অধরা রফাসূত্র]

জানা গিয়েছে, আগামী মাসেই সপ্তম দফার পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হবে নির্ভয় মিসাইলের। তারপরই ভারতের স্থলসেনা ও নৌসেনার হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেওয়া হবে এই ক্ষেপণাস্ত্র। কিন্তু চিনের সঙ্গে লড়াইয়ের আবহে সীমান্তে প্রতিরক্ষা ও আক্রমণের ক্ষমতা বৃদ্ধ করতে অনুষ্ঠানের আগেই বেশ কয়েকটি নির্ভয় মিসাইল সিস্টেম মিতায়েন করেছে নয়াদিল্লি। নির্ভয় মিসাইলটি তৈরি করেছে প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা (DRDO)। সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি কঠিন জ্বালানিতে চলা এই সাবসোনিক মিসাইল ১ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত আঘাত হানতে সক্ষম। শত্রুপক্ষের রাডারের চোখে ধুলো দিতে জমি বা সমুদ্রপৃষ্ট ঘেঁষে নিশানায় দিকে উড়ান ভরে মিসাইলটি।

বিশ্লেষকদের মতে, শুধু সীমান্তে নয়, দেশের গভীরে মজুত লালফৌজের ঘাঁটি এবার ভারতীয় বাহিনীর মিসাইলের আওতায় চলে এসেছে। এর ফলে যুদ্ধের পরিস্থিতিতে চিনা সেনার মেরুদণ্ড ভাঙতে সে দেশের অনেকটা ভিতরে থাকা রসদ, গোলাবারুদের গোদাম গুঁড়িয়ে দেবে ভারতীয় ফৌজ। এদিকে, থেমে নেই চিনও। তিব্বত ও আকসাই চিনে ২ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত আঘাত হানতে সক্ষম মিসাইল সিস্টেম মোতায়েন করেছে লালফৌজ।

উল্লেখ্য, বুধবার চিনের সঙ্গে সংঘাতের আবহে এবার বর্ধিত পাল্লার সুপারসনিক ব্রহ্মস ক্রুজ মিসাইলের সফল উৎক্ষেপণ করে ভারত। রাশিয়া ও ভারতের যৌথ উদ্যোগে তৈরি ক্ষেপণাস্ত্রটি এবার ৪০০ কিলোমিটার পর্যন্ত আঘাত হানতে সক্ষম। বুধবার ব্রহ্মস মিসাইলের নয়া সংস্করণটির উৎক্ষেপণ করা হয়। প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থার (DRDO) ‘PJ-10’ প্রজেক্টের আওতায় এই পরীক্ষা করা হয়। DRDO সূত্রে খবর, সম্পূর্ণ দেশীয় প্রযুক্তিতে তৈরি বুস্টার বা নয়া ইঞ্জিনের দৌলতে এবার ৪০০ কিলোমিটার পর্যন্ত হামলা চলতে পারবে এই মিসাইলটি। এদিনের পরীক্ষায় সুনির্দিষ্ট টার্গেটে আঘাত হেনেছে ক্ষেপণাস্ত্রটির নয়া সংস্করণ। সব মিলিয়ে চিনকে ঘিরে ফেলতে প্রস্তুত ফৌজ।

[আরও পড়ুন: ফের কাশ্মীরে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন পাকিস্তানের! শহিদ এক জওয়ান, আহত আরও ১]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement