BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চিনের দিকে ঝুঁকছে বাংলাদেশ, পরিস্থিতি সামাল দিতে নয়া দূত পাঠাচ্ছে ভারত

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 13, 2020 1:37 pm|    Updated: July 13, 2020 1:37 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তান চিনের অজ্ঞাবহ দাশ বই কিছু নয়। বেজিংয়ের ঋণের ফাঁদে আগেই পা দিয়েছে শ্রীলঙ্কা। নেপালেও বর্তমানে রয়েছে ‘চিনপন্থী’ কমিউনিস্ট সরকার। তবে ভারতের সঙ্গে কিছুটা সদ্ভাব রয়েছে মায়ানমার, ভুটান ও বাংলাদেশের। সেই কথা মাথায় রেখে নয়াদিল্লিকে বিপাকে ফেলতে এবার ঢাকার সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করছে বেজিং। সেই চেষ্টায় সাড়া মিলেছে হাসিনা সরকারের তরফেও। ফলে এবার পরিস্থিতি সামাল দিতে তড়িঘড়ি মাঠে নেমেছে মোদি সরকার।

[আরও পড়ুন: প্রবল বৃষ্টির জেরে নেপালের বিভিন্ন জায়গা নামছে ধস, তিনদিনে মৃত কমপক্ষে ৫৪]

জানা গিয়েছে, বাংলাদেশে ভারতের নয়া রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিযুক্ত হচ্ছেন দুঁদে কুটনীতিবিদ বিক্রম ডরাইস্বামী। বর্তমানে এই পদে রয়েছেন রিভা গাঙ্গুলী দাস। আগামী সেপ্টেম্বর মাসে বিদেশমন্ত্রকের সচিব (পূর্ব) হয়ে নয়াদিল্লি ফেরত আসবেন তিনি। সূত্রের খবর, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (CAA, তিস্তা জলবণ্টন চুক্তি ও রোহিঙ্গা ইস্যু-সহ একাধিক বিষয়ে ঢাকার সঙ্গে নয়াদিল্লির কিছুটা চাপানউতোর চলছে। বিগত কয়েক মাসে ভারতের দূতের সঙ্গে নাকি একবারও দেখা করেননি বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিকে বাণিজ্য ও চিকিৎসা সরঞ্জাম পাঠিয়ে লাগাতার বাংলাদেশের উপর নিজের প্রভাব বাড়াতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে চিন।

বিশ্লেষকদের মতে, কৌশলগত দিক থেকে ভারতের কাছে বাংলাদেশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার আসরে নামানো হয়েছে দুঁদে কুটনীতিবিদ বিক্রম ডরাইস্বামীকে। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরের ঘনিষ্ট বলেই পরিচিত ডরাইস্বামী। মান্দারিন, উর্দু, ফরাসিতে দারুণ দখল রয়েছে তাঁর। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ ও মায়ানমার বিষয়ক অতিরিক্ত সচিব পদে কর্মরত রয়েছেন। এর আগে দক্ষিণ কোরিয়া ও উজবেকিস্তানে রাষ্ট্রদূত ছিলেন ডরাইস্বামী।

উল্লেখ্য, আর্থিক সুবিধার টোপ দিয়ে বাংলাদেশকে কাছে টানতে চাইছে শি জিনপিংয়ের সরকার। লাদাখে ভারতের সঙ্গে সংঘর্ষের আবহে, শুক্রবার বাংলাদেশের জন্য আগেই বিশেষ আর্থিক সুবিধার কথা ঘোষণা করেছিল চিন। ঢাকার মন পেতে বাংলাদেশ (Bangladesh) থেকে চিনে রপ্তানি হওয়া পণ্যের ৯৭ শতাংশকেই শুল্কমুক্ত করে দেয় বেজিং। জুলাইয়ের প্রথম দিন থেকে নতুন সিদ্ধান্তটি কার্যকর হয়েছে। এছাড়া, করোনা ভাইরাসের টিকা আবিষ্কার হলে ঢাকাকে তা জোগান দেওয়ার আশ্বাস ও দিয়েছে বেজিং। সব মিলিয়ে লাগাতার নিজের জাল বিস্তার করে চলেছে কমিউনিস্ট দেশটি।

[আরও পড়ুন: ভয়াবহ বন্যার জেরে চিনে মৃত কমপক্ষে ১৪১, ক্ষতিগ্রস্ত সাড়ে তিন কোটির বেশি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement