BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

‘চিনের সঙ্গে দীর্ঘ লড়াইয়ের জন্য আমরা প্রস্তুত’, সংসদীয় কমিটিকে জানাল ভারতীয় সেনা

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: August 11, 2020 1:18 pm|    Updated: August 11, 2020 1:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনের সঙ্গে লড়াই যে লম্বা হতে চলেছে, সে ইঙ্গিত অনেক আগেই মিলেছে। প্যাংগং লেকের ফিঙ্গার পয়েন্ট এবং দেপসাং উপত্যকা থেকে সেনা সরাতে রাজি নয় চিন। ভারত ভূখণ্ডে অনুপ্রবেশের আগের অবস্থানে অর্থাৎ ৫ মে’র আগেকার অবস্থানে সরে যেতে নারাজ পিপলস লিবারেশন আর্মি (PLA)। এই পরিস্থিতিতে চিনাদের হটাতে দীর্ঘ লড়াই প্রয়োজন। কিন্তু সমস্যা হল সামনে শীতকাল। লাদাখের তাপমাত্রা শীতের সময় হিমাঙ্কের অনেকটা নিচে নেমে যায়। সেই প্রতিকূল পরিস্থিতিতে লড়াই করা তো দূরের কথা, সীমান্তে টহলদারিই দুষ্কর হয়ে যায়। কিন্তু ভারতীয় সেনা (Indian Army) সমস্তরকম পরিস্থিতির জন্যই তৈরি। মঙ্গলবার সেনার তরফে তেমনটাই জানানো হয়েছে প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় কমিটিকে।

চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতের (Bipin Rawat) নেতৃত্বে সেনার শীর্ষ আধিকারিকরা প্রতিরক্ষা বিষয়ক সংসদীয় কমিটিকে জানিয়েছে, চিন সীমান্তে সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া শেষ হতে সময় লাগবে। তবে, যদি কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হয়, তাহলে ভারতীয় সেনা পুরোপুরি প্রস্তুত। ভারত চিনের বিরুদ্ধে লম্বা লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে। এমনকী, শীতকালের বিপজ্জনক পরিস্থিতিতেও আমরা লড়াইয়ের প্রস্তুতি সেরে রেখেছি।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরে নাশকতার লক্ষ্যে অস্ত্র পাচার পাকিস্তানের, আগ্নেয়াস্ত্র-সহ সেনার জালে তিন দুষ্কৃতী]

সেনার এই বয়ান নিঃসন্দেহে তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ দিন তিনেক আগেই সেনাপ্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারভানে (Manoj Mukund Naravane) সেনা কম্যান্ডারদের সবরকমের যুদ্ধ প্রস্তুতি সেরে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। ভারতীয় সেনাকর্তাদের মতে, সেনা অপসারণ নিয়ে অহেতুক টালবাহানা করে চিনা সেনা ভারতীয় সেনাবাহিনীর স্নায়ুর পরীক্ষা নিচ্ছে। প্রায় তিন মাসের বেশি সময় ধরে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (LAC) পেরিয়ে ভারতীয় এলাকায় ঘাঁটি গেড়ে বসে রয়েছে চিনারা। এলএসি’র সীমানাটাই বদলে দিতে চাইছে চিন। ‘এখনই নিঃশর্তে চিনকে সেনা প্রত্যাহার করতে হবে’ বলে ভারতের পক্ষ থেকে হুঁশিয়ারি দেওয়ার পরও কাজের কাজ কিছু হয়নি। শুধু মাত্র গালওয়ান, হটস্প্রিং, ফিঙ্গার এরিয়া ফোর থেকে সেনা অপসারণ করেছে পিএলএ। গোগরা, প্যাংগং, দেপসাংয়ে চিনা সেনার অবস্থান ও পরিকাঠামো বহাল তবিয়তেই আছে। এই পরিস্থিতিতে ভারতের দীর্ঘ লড়াইয়ের প্রস্তুতি চিনের জন্য হুঁশিয়ারিও হতে পারে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement