৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

৬ মাঘ  ১৪২৬  সোমবার ২০ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রবল বিরোধিতার মধ্যে বুধবার রাজ্যসভায় পাশ হয়েছে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ২০১৯ (ক্যাব)। বৃহস্পতিবার বিলটির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করল ইন্ডিয়ান ইউনিয়ন মুসলিম লিগ। মুসলিম লিগের হয়ে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দাখিল করেছেন আইনজীবী তথা কংগ্রেস সাংসদ কপিল সিব্বল। তিনি জানিয়েছেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে অবৈধ ও পরিত্যক্ত ঘোষণার আরজি করা হয়েছে আদালতে। বুধবারই বিলের বিরোধিতায় সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছিল মুসলিম লিগ। বিলটি অবৈধ ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছে তারা রিট পিটিশনে।

বুধবার দীর্ঘ ৮ ঘণ্টা ধরে বিতর্ক হয় বিলটি নিয়ে। বিলটি সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানোর দাবি তোলে তৃণমূল-সহ বিরোধী সাংসদরা। কিন্তু ভোটাভুটিতে খারিজ হয়ে যায় সেই আবেদন। আরও ১৪টি সংশোধনীর প্রস্তাবও খারিজ হয়ে যায় ভোটাভুটিতে। তখনই নিশ্চিত হয়ে যায় বিলের ভাগ্য। চূড়ান্ত ভোটাভুটির সময় বিলটির পক্ষে পড়ে ১২৫টি ভোট এবং বিপক্ষে ১০৫টি। এদিন ভোটাভুটির আগে ওয়াক আউট করেন শিব সেনার তিন সাংসদ। রাজ্যসভায় গরহাজির ছিলেন বসপার ২ সাংসদ। যথারীতি বিলের পক্ষে সমর্থন আরও শক্তিশালী হয়। এই বিল পাশের মধ্যে দিয়ে পড়শি ইসলামিক দেশগুলিতে নিপীড়িত অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণ করল দ্বিতীয় মোদি সরকার।

[আরও পড়ুন: অশান্ত অসমে আক্রান্ত নেতা-মন্ত্রী, বাতিল একাধিক ট্রেন ও বিমান পরিষেবা]

বিল পাশের পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী টুইট করেন, ‘নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশের মধ্যে দিয়ে কোটি কোটি বঞ্চিত ও নির্যাতিত মানুষের স্বপ্নপূরণ হল। নির্যাতিতদের সম্মান ও নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিজির কাছে আমি কৃতজ্ঞ। বিলটি সমর্থনের জন্য সবাইকে ধন্যবাদ।’ দিনটিকে ‘যুগান্তকারী’ বলে আখ্যা দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। উলটো দিকে কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী আজকের দিনটিকে ভারতীয় সংবিধানের কলঙ্কিত দিন বলেছেন। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও জানিয়েছে কংগ্রেস-সিপিএম।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং