২২ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

অশান্ত অসমে আক্রান্ত নেতা-মন্ত্রী, বাতিল একাধিক ট্রেন ও বিমান পরিষেবা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: December 12, 2019 9:43 am|    Updated: December 12, 2019 8:49 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ঘিরে কার্যত রণক্ষেত্র অসম। বুধবার দিনের শুরুতেই দফায় দফায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ায় বিক্ষোভকারীরা। মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল থেকে শুরু করে আক্রান্ত বিজেপির একাধিক নেতা-মন্ত্রীরা। পরিস্থিতির দ্রুত অবনতি হওয়ায় বাতিল করা হয়ছে ২১টি ট্রেন। গুয়াহাটি বিমানবন্দর থেকে বাতিল একাধিক বিমান পরিষেবা।

বুধবার রাজ্যসভায় বিতর্কিত বিলটি পাশ হওয়ার পর আরও অবনতি হয়েছে পরিস্থিতির। এদিন সকাল থেকেই রাজধানী দিসপুর, গুয়াহাটি-সহ বঙ্গাইগাঁও, গোলাঘাট, তিনসুকিয়া, ডিব্রুগড়, শিবসাগর, জোরহাট, মাজুলির মতো জেলাগুলিতে পথ অবরোধ শুরু হয়েছে। গুয়াহাটি ও ডিব্রুগড়ের রাস্তায় ফ্ল্যাগ মার্চ করছে সেনা। বিপদ বুঝে একাধিক অঞ্চলে সেনা ও আধা সামরিক বাহিনীর জওয়ানদের মোতায়েন করেছে প্রশাসন। গতকাল সন্ধ্যা ৭টা থেকেই ব্রহ্মপুত্র উপত্যকার ১০টি জেলাতে ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। গুয়াহাটিতে ১৪৪ ধারা লগু করা হয়েছে। ইতিমধ্যে কাশ্মীর থেকে ২০ কোম্পানি আধাসেনা অসমে পঠিয়েছে কেন্দ্র। কামরূপ এক্সপ্রেস-সহ গুয়াহাটি থেকে ডিব্রুগড়গামী বেশ কয়েকটি ট্রেন বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। গুয়াহাটি বিমানবন্দর থেকে পরিষেবা বাতিল করেছে স্পাইস জেট ও ভিস্তারা। যানবাহন না মেলায় কাজিরাঙায় আটকে পড়েছেন বহু পর্যটক। এদিকে, আজ ১২ ঘন্টার অসম বনধের ডাক দিয়েছে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন উলফা। ফলে অপার অসমে জনজীবন বিপর্যস্ত। তুলনায় একেবারেই শান্ত বরাক উপত্যকা। এদিকে শান্তি বজায় রাখতে অসমবাসীর উদ্দেশে অসমিয়া ভাষায় টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। টুইটে তিনি অসম চুক্তির ষষ্ঠ দফা লাগু করার আশ্বাস দিয়েছেন।  

উল্লেখ্য, গত সোমবার থেকেই কার্যত জ্বলছে অসম। অল আসাম স্টুডেন্টস ইউনিয়ন-সহ একাধিক ছাত্র সংগহনের যৌথ মঞ্চ ‘নর্থইস্ট স্টুডেন্টস অর্গানাইজেশন’ বা NESO’র ডাকা বন্ধে সোমবার ও মঙ্গলবার অসমে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়। তবে এরপরও প্রায় গোটা দিন ধরেই আক্রান্ত হয়েছেন শাসকদলের একাধিক নেতা ও মন্ত্রী। গতকাল রাতে ডিব্রুগড়ে মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়ালের বাড়িতে পাথর ছোঁড়ে ক্যাব বিরোধীরা। বিক্ষোভকারীদের ভয়ে থানায় আশ্রয় নিতে বাধ্য হন গহপুরের বিজেপি বিধায়ক উৎপল বরা। এর আগে হামলা হয় গুয়াহাটির বিজেপি সাংসদ কুইন ওঝার বাড়িতে।ডিব্রুগড়ে আক্রান্ত হন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামেশ্বর তেলি। 

[আরও পড়ুন: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশে উচ্ছ্বসিত মোদি, চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে যাচ্ছে কংগ্রেস]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement