BREAKING NEWS

২১ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ৭ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশে উচ্ছ্বসিত মোদি, চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে যাচ্ছে কংগ্রেস

Published by: Sulaya Singha |    Posted: December 11, 2019 9:54 pm|    Updated: December 11, 2019 9:54 pm

An Images

নরেন্দ্র মোদি

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিরোধীদের প্রবল প্রতিবাদ সত্ত্বেও বুধবার রাজ্যসভায় পাশ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল। বিলটির পক্ষে পড়ে ১২৫টি ভোট এবং বিপক্ষে ১০৫টি। দিনটিকে ‘যুগান্তকারী’ বলে আখ্যা দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। উলটো দিকে কংগ্রেস সভাপতি সোনিয়া গান্ধী আজকের দিনটিকে ভারতীয় সংবিধানের কলঙ্কিত দিন বলেছেন। সঙ্গে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলকে চ্যালেঞ্জ করে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার কথাও জানিয়েছে কংগ্রেস।

বিল নিয়ে ভোটাভুটির আগে বিলটি সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানো নিয়ে ভোটাভুটি হয়। সেখানেও বিরোধীদের দাবি খারিজ হয়ে যায়। ভোট শুরুর ঠিক আগে আবার ওয়াক আউট করেন শিব সেনার তিন সাংসদ। ভোট বয়কট নিয়ে শিব সেনার তরফে সঞ্জয় রাউত বলেন, “আমি এবং আমার দলের মনে হয়েছে বেশ কিছু প্রশ্নের সঠিক উত্তর পাওয়া যায়নি। তাই এটি সমর্থন বা বিরোধিতা করার কোনও মানে হয় না।” তবে শিব সেনা লোকসভায় ভোট দেওয়ার পরও রাজ্যসভায় না দেওয়ার বিষয়টি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম।

[আরও পড়ুন: ধরাশায়ী বিরোধীরা, রাজ্যসভায় পাশ নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল]

এই বিল পাশের মধ্যে দিয়ে পড়শি ইসলামিক দেশগুলিতে নিপীড়িত অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণ করল দ্বিতীয় মোদি সরকার। এদিন বিল পাশের পরই টুইটারে মোদি লেখেন, “এটি দেশের যুগান্তকারী দিন হিসেবে চিহ্নিত হল। রাজ্যসভায় নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাশ হওয়ায় আমি উচ্ছ্বসিত। যাঁরা এর পক্ষে ভোট দিয়েছেন, প্রত্যেককে ধন্যবাদ। বহু বছর ধরে নিপীড়িত মানুষদের কষ্ট লাঘব হতে চলেছে।” নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের মূল কারিগর অমিত শাহর মুখে চওড়া হাসি। বলছেন, নিপীড়িত মানুষদের স্বপ্নপূরণ হল। আনন্দে মেতেছে রাজ্য বিজেপি দপ্তরেও।

প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বৃহস্পতিবার রাজ্য অফিসের সামনে বিজয়োৎসব হবে বলে জানানো হয়েছে। তবে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। বলেন, “এই সরকার শুধু প্রতিশ্রুতিই দেয়। কিন্তু তা পূরণ করতে পারে না। মমতা দিদি (মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) সাফ জানিয়ে দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গে কোনও এনআরসি এবং CAB হবে না।”

এদিকে, কংগ্রেসের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বিলটিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আদালতে মামলা করা হবে। সংসদে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পেশ করার তোড়জোড় শুরু হতেই প্রতিবাদের সলতে পাকাচ্ছিল উত্তরপূর্ব ভারত। সোমবার মাঝরাতে তা রাজ্যসভায় পেশ হতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে অসম, ত্রিপুরা। বুধবার সেই উত্তাপ আরও বাড়ে। অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি অসমে। বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবাও। একই ছবি ত্রিপুরার। তবে বিল পাশ হওয়ার পর মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব জানান, এই বিলের প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য যে ধর্মঘট ডাকা হয়েছিল, তা তুলে নেওয়া হল।

[আরও পড়ুন: ‘মুসলিমরা এদেশে সুরক্ষিত থাকবেন’, রাজ্যসভায় আশ্বাস দিলেন অমিত শাহ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement