৯ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এনএসজিতে সমর্থন আদায়ে জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে মোদি!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 21, 2016 7:39 pm|    Updated: June 21, 2016 7:46 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারতের পরমাণু ক্লাবে প্রবেশ নিয়ে অনড় অবস্থান নিয়েছে চিন৷ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের কথাতেও যে চিড়ে ভেজেনি তা চিনের বিবৃতিতেই স্পষ্ট৷ চিনের তরফে সাফ জানানো হয়েছিল, সিওলে ভারতের এনসজি-তে প্রবেশ নিয়ে কোনও আলোচনা হওয়ার কথাই নেই৷ এই বক্তব্যের পরেই চিনের রাষ্ট্রপতি জি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি৷

ভারতের পরমাণু ক্লাবে প্রবেশের বিষয়ে আমেরিকা ও রাশিয়ার মতো দেশ সমর্থন জানালেও অনড় অবস্থান নিয়েছে চিন৷ গোড়া থেকেই পাকিস্তানের পক্ষে সওয়াল করে, ভারতের বিরোধিতা করেছে চিন৷ ভারত পরমাণু ক্লাবে প্রবেশ করলে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে পরমাণু শক্তি নিয়ে প্রতিযোগিতা বাড়বে বলেও চিনের তরফে জানানো হয়েছে৷ এমন পরিস্থিতিতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে সুষমা স্বরাজ বলেন, চিন ভারতের প্রবেশে বাধা দিচ্ছে না, আসলে আনুষঙ্গিক প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখছে৷ কিন্তু তাতেও চিন তার অবস্থান থেকে সরেনি৷ ঠিক এর পরেরদিনই চিন জানিয়ে দেয়, সিওলের আসন্ন সম্মেলনে আসলে ভারতের পরমাণু ক্লাবে প্রবেশ নিয়ে কোনও আলোচনা হওয়ার কথা নেই৷ এই মন্তব্যেই ভারতের প্রতি বার্তা স্পষ্ট৷ এর স্বপক্ষে চিনের যুক্তি, এনএসজি-তে যোগ দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট দেশকে এনপিটি বা নিউক্লিয়ার নন প্রলিফারেশন ট্রিটি-র সদস্য হতে হয়৷ কিন্তু ভারত তা নয়৷ এক্ষেত্রে ভারত যদি প্রবেশ করতে পারে, তাহলে পাকিস্তানও সমান দাবিদার৷ চিনের বক্তব্য, ভারতের বিরোধিতা তারা করছে না৷ কিন্তু এনপিটি সংক্রান্ত যে নিয়ম  আছে তা নিয়ে সব দেশকে আগে সহমত হতে হবে৷ অন্যথায় আইন ভাঙা চলবে না৷ সেই সঙ্গে চিন জানিয়ে দেয়, ভারতের এনএসজি-তে প্রবেশ নিয়ে সবরকম আলোচনার পথ খোলা থাকল৷

এই পরিস্থিতিতে এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে জিনপিংয়ের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দেখা হওয়ার কথা৷ প্রধানমন্ত্রী জানিয়েছেন, সেই সাক্ষাতে কাঙ্খিত সমর্থন আদায়ের ব্যাপারে দরবার করবেন তিনি৷ এই দৌত্যের উপরই ভারতের এনএসজি-তে প্রবেশের ভবিতব্য অনেকখানি নির্ভর করছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement