BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

তিহার জেলে আতঙ্ক! সিবিআইয়ের হেফাজতেই থাকতে চেয়ে আবেদন চিদম্বরমের

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: August 30, 2019 12:27 pm|    Updated: August 30, 2019 12:31 pm

P Chidambaram Offered To Remain In CBI Custody

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জামিনের আবেদন জানিয়েও শেষে অবস্থান বদলালেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র ও অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম। বৃহস্পতিবার দিল্লির বিশেষ আদালতে  সিবিআইয়ের হেফাজতে থাকার মেয়াদ আরও বাড়ানোর আবেদন করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: অবাক কাণ্ড! গজনভি মিসাইল উৎক্ষেপণের কথা ভারতকে জানিয়েছিল পাকিস্তানই]

এই বিষয়ে তাঁর আইনজীবী ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কপিল সিব্বাল আদালতে বলেন, ‘আমার মক্কেল সেপ্টেম্বরের ২ তারিখ পর্যন্ত সিবিআই হেফাজতে থাকার আবেদন জানা জানিয়েছেন। ইডির আধিকারিকদেরও এই বিষয়ে কোনও আপত্তি নেই। শুক্রবার আমার মক্কেলে সিবিআইয়ের হেফাজতে থাকার সময় শেষ হচ্ছে। কিন্তু, তিনি আর দুদিন সিবিআইয়ের হেফাজতে থাকার আবেদন জানিয়েছেন। সোমবার পর্যন্ত তাঁকে সিবিআই হেফাজতে রাখা হোক।’

আইনজীবীদের একাংশ  জানাচ্ছে, অনেক হিসেবে করেই এই পদক্ষেপ নিয়েছেন চিদম্বরম। কারণ যদি আদালত তাঁর সিবিআই হেফাজতে থাকার মেয়াদ বৃদ্ধি না করে তাহলে দিল্লির তিহার জেলে যেতে হবে। যা কোনও ভাবেই চাইছেন না প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তাই যিনি এতদিন নিজের বন্দিদশা কাটাতে চাইছিলেন তিনিই এখন সিবিআইয়ের হেফাজতে থাকার জন্য আবেদন করছেন।

[আরও পড়ুন: প্লাস্টিকের ব্যাগ হাতে স্টেশনে ঢুকলেই হবে জরিমানা, নয়া নির্দেশিকা রেলের]

দিল্লি হাইকোর্ট চিদম্বরমের আগাম জামিনের বাতিল করার পরই আসরে নামে সিবিআই। এরপর ২৪ ঘণ্টা ধরে কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না চিদম্বরমের। যদিও পরে দিল্লির বাড়ির পাঁচিল টপকে ভিতরে ঢুকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে সিবিআই। পরেরদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এ এস বোপান্না ও বিচারপতি আর ভানুমতির বেঞ্চ তাঁকে শুক্রবার অবধি সিবিআই হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয়। এর আগে হাইকোর্টের আগাম জামিন নাকচ করার বিরুদ্ধে চিদম্বরম শীর্ষ আদালতে আবেদন করেছিলেন। আগামী ৫ সেপ্টেম্বর তার শুনানি হবে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আইএনএক্স মিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ইন্দ্রাণী মুখোপাধ্যায়ের অভিযোগের ভিত্তিতেই চিদম্বরম ও তাঁর ছেলে কার্তির বিরুদ্ধে  দুর্নীতির মামলা করেছে সিবিআই ও ইডি। ইন্দ্রাণী ও তাঁর স্বামী পিটার দু’জনেই ইন্দ্রাণীর মেয়ে শিনা বোরা হত্যা মামলায় জেলবন্দি। আইএনএক্স মিডিয়াকে বিদেশি লগ্নির ছাড়পত্র দিতে গিয়ে তৎকালীন অর্থমন্ত্রী চিদম্বরম তাঁর পুত্র কার্তিকে অর্থ পাইয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিলেন বলে অভিযোগ এনেছেন ইন্দ্রাণী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে