১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ২৮ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

NRC নিয়ে শরিকদের সঙ্গে বৈঠক ডাকুক বিজেপি, দাবি জেডিইউ-এর

Published by: Paramita Paul |    Posted: December 22, 2019 2:53 pm|    Updated: December 22, 2019 2:53 pm

JDU called upon its ally BJP to convene a meeting of ruling NDA on NRC..

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জাতীয় নাগরিকপঞ্জী বা NRC নিয়ে জোট শরিকদের বৈঠক ডাকুক বিজেপি। এবার এমন মত প্রকাশ করল সংযুক্ত জনতা দল বা জেডিইউ। একই সঙ্গে NRC নিয়ে তাঁদের অবস্থান আরও একবার স্পষ্ট করে দিল বিহারে ক্ষমতাসীন এই দল। সাফ ঘোষণা, বিহারে জাতীয় নাগরিকপঞ্জী কার্যকর করতে দেওয়া হবে না।

একই সুর এনডিএ-র আরেক জোট শরিক এলজেপির গলাতেও। টুইটারে এলজেপি প্রধান চিরাগ পাসওয়ানের দাবি, CAA ও NRC বিরোধী মানুষকে বোঝাতে তৎপর হোক কেন্দ্র সরকার। CAA ও NRC’র বিরোধী আন্দোলনে উত্তাল গোটা দেশ। অন্যদিকে এই আইনের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন জোট শরিকরাও। এই পরিস্থিতিতে জোট শরিকদের নিয়ে বৈঠক ডাকার প্রস্তাবে দিয়ে জেডিইউ যে চাপ বাড়াল তা বলাই বাহুল্য।

[আরও পড়ুন :অসমের পুনরাবৃত্তি লখনউয়ে, বিমানবন্দরে তৃণমূলের প্রতিনিধিদের বাধা দেবে প্রশাসন]

বিহারে এনআরসি কার্যকর করতে দেওয়া হবে না বলে আগেই জানিয়েছিলেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। শনিবার এ প্রসঙ্গে দলের মুখপাত্র কে সি ত্যাগী বলেন, “এনডিএ জোটের একাধিক শরিক এনআরসির বিরুদ্ধে মত দিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে যদি বিজেপি বৈঠক ডাকার সিদ্ধান্ত নেয় জেডিইউ সেই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাবে।” তাঁর মত, “দেশের এই পরিস্থিতিতে এই বৈঠক ডাকা প্রয়োজন রয়েছে।” 

[আরও পড়ুন :অসমে জমি কিনতে পারবেন ভূমিপুত্ররাই, আইনে বড়সড় বদলের উদ্যোগ রাজ্য সরকারের]

এদিকে বিহারে এনডিএ জোটের আরেক শরিক এলজেপির প্রধান চিরাগ পাসওয়ানও টুইট করেন। এ প্রসঙ্গে টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি লেখেন, “দেশজুড়ে যারা এনআরসির বিরুদ্ধে আন্দোলন চালাচ্ছেন, তাঁদের বোঝানোর দায়িত্ব নিক সরকার। এনডিএর শরিক হওয়ার দরুণ আমরা কেন্দ্রকে আবেদন করছি, মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দেওয়ার।”

[আরও পড়ুন: অভব্য আচরণ করেছেন বিমানকর্মীরা, মেজাজ হারালেন প্রজ্ঞা ঠাকুর]

প্রসঙ্গত, সংসদে CAA’র স্বপক্ষে ভোট দিয়েছিল জেডিইউর সাংসদেরা। কিন্তু এর মাঝেই বেঁকে বসেন দলের সভাপতি প্রশান্ত কিশোর। গত শনিবার তিনি তাঁর ক্ষোভ জানাতে দেখা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের সঙ্গে। সেই সময় নীতীশকে তিনি জানিয়ে দেন, জেডিইউ-বিজেপি জোট সরকার যদি বিহারে এনআরসি কার্যকরের উদ্যোগ নেয়, তা হলে তিনি দলীয় পদ থেকে ইস্তফা দেবেন। তখনই নীতীশ আশ্বস্ত করেছিলেন প্রশান্ত কিশোরকে। জানিয়েছিলেন, বিহারে কোনও ভাবেই এনআরসি কার্যকর করা হবে না। এর জেরে যে কেন্দ্র চাপে পড়বে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে