BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

কাশ্মীরে ধুলিসাৎ জইশ-লস্কর, মৃত্যুর প্রহর গুনছে হিজবুলের একাকী কমান্ডার

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 28, 2020 11:07 am|    Updated: January 28, 2020 2:01 pm

JeM leadership in Jammu and Kashmir wiped out: Army

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একের পর এক অভিযানে খতম হয়েছে জইশ-ই-মহম্মদের নেতৃত্ব। ধুলিসাৎ পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিগোষ্ঠী লস্কর-ই-তইবাআল বদর। জম্মু ও কাশ্মীরে এবার শুধু বেঁচে হিজবুল মুজহিদিনের এক কমান্ডার। এমনটাই জানিয়েছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

এক বিবৃতিতে ভারতীয় সেনার ১৫ কোরের কমান্ডার লেফট্যানান্ট জেনারেল কেজেএস ধিঁলো জানিয়েছেন, কাশ্মীর উপত্যকায় পাকিস্তানি জঙ্গি সংগঠনগুলি জমি হারিয়েছে। সেনার লাগাতার অভিযানে উপত্যকায় মারা পড়েছে জইশের সমস্ত শীর্ষ নেতারা। ফলে এখন দিশেহারা অবস্থা সংগঠনটির। একইভাবে বাহিনীর সঙ্গে এনকাউন্টার ও ধরপাকড়ে তছনছ হয়েছে গিয়েছে লস্কর ও আল বদর। গ্রেপ্তারি বা এনকাউন্টার এড়িয়ে কোনওমতে গা ঢাকা দিয়ে রয়েছে হিজবুলের কমান্ডার রিয়াজ কাইকো। তবে দলবল হারিয়ে সেও কোণঠাসা। আর বেশিদিন লুকিয়ে থাকতে পারবে না সে। 

উল্লেখ্য, গত শনিবারই দক্ষিণ কাশ্মীরের ত্রাল এলাকায় জইশের স্বঘোষিত প্রধান কারি ইয়াসির-সহ তিন জঙ্গিকে নিকেশ করে সেনাবাহিনী। কাশ্মীরের ইনস্পেক্টর জেনারেল অফ পুলিশ বিজয় কুমার জানান, গত রবিবার সাধারণতন্ত্র দিবসে কাশ্মীরে বড় হামলার ছক কষেছিল ওই জঙ্গিরা। তা রূপায়ণের আগেই শীর্ষ কম্যান্ডার-সহ তিন জইশ জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে।

এদিকে, সোমবার সেনাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে কাশ্মীরের আরওয়ানি গ্রামে এক হিজবুল জঙ্গি খতম হয়েছে। সংঘর্ষে সেনার এক অফিসারও ঘায়েল হয়েছেন। গুলিবিদ্ধ ওই সেনা অফিসারকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। সেনা জানিয়েছে, বিশেষ সূত্রে খবর পেয়ে আরওয়ানি গ্রামে পুলিশের সঙ্গে যৌথভাবে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়। সুরক্ষা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে জঙ্গিরা গুলি চালালে, পালটা গুলি ছোড়ে বাহিনী। দু-পক্ষের তুমুল সংঘর্ষে নিহত হয় হিজবুলের এক জঙ্গি। নিহত জঙ্গির নাম শাহিদ খার। তার বাড়ি কাশ্মীরের কুলগমে। নিরাপত্তা বাহিনীর উপর হামলা-সহ একাধিক মামলায় সে জড়িত ছিল। ঘটনাস্থল আগ্নেয়াস্ত্র ছাড়াও প্রচুর পরিমাণ বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে।   

[আরও পড়ুন: সুপ্রিম কোর্টে বহুবিবাহ ও নিকাহ হালালা বন্ধের দাবিতে মামলা, বিরোধিতা মুসলিম ল বোর্ডের]                                  

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে