BREAKING NEWS

১৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০ 

Advertisement

সীমান্তের ওপারে ওঁৎ পেতে ২৩০ জঙ্গি! অনুপ্রবেশের চেষ্টা রুখল ভারত

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: September 7, 2019 2:53 pm|    Updated: September 7, 2019 4:03 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় ২৩০ জন জঙ্গি ভারত সীমান্তে অপেক্ষা করছে অনুপ্রবেশের জন্য। আর তাদের প্রত্যক্ষ মদত দিচ্ছে পাকিস্তানি সেনা। গোয়েন্দা সূত্রে খবর মিলতেই সতর্কতা আরও বেড়েছে ভূস্বর্গে। আর তারই সাফল্য মিলল শুক্রবার। ৬ জন জঙ্গির অনুপ্রবেশের চেষ্টা রুখলেন ভারতীয় সেনা জওয়ানরা।

[আরও পড়ুন: পরীক্ষায় একাধিকবার ফেল ল্যান্ডার বিক্রম! গুঞ্জন ইসরোর আশেপাশে]

শনিবার ভারতীয় সেনার তরফে প্রকাশিত বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, গতকাল নৌসেরা সেক্টরের লাম এলাকার ওপারে পাকিস্তানি পোস্টের পিছনে প্রচণ্ড আওয়াজ হচ্ছিল। আচমকা পাঠানি স্যুট পরে ছ’জন লোক বেরিয়ে আসে। তারপর দৌড়ে ভারতীয় সীমান্তের মধ্যে প্রায় ১৫০ মিটার ঢুকে পড়ে। বিষয়টি দেখতে পেয়ে তাদের সামনে থাকা ফাঁকা জায়গায় গুলি ছুঁড়তে শুরু করেন জওয়ানরা। সেসময় পাকিস্তানের সেনারা ওদের দেশের সাধারণ নাগরিকদের সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে ঢোকার জন্য উৎসাহ ও উসকানি দিচ্ছিল। বিষয়টি দেখতে পেয়ে গুলি চালনার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণ করা হয়। আসলে সাধারণ পাক নাগরিকদের কোনওরকম যেন ক্ষতি না হয় তার দিকে লক্ষ্য রাখা হয়েছিল। তবে সীমান্ত পেরিয়ে কাউকে অনুপ্রবেশও করতে দেওয়া হয়নি।

জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা বাতিলের পর সীমান্তে বারবার সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। সীমান্তের এপারে থাকা ভারতীয় পোস্ট লক্ষ্য করে গুলি ও মর্টার ছোঁড়ার আড়ালে জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ করানোর চেষ্টা করছে। শুক্রবার নৌসেরায় অনু্প্রবেশের চেষ্টা করানোর পাশাপাশি শনিবারও পুঞ্চ জেলার কৃষ্ণাঘাঁটি সেক্টরে সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন করেছে তারা। তাই ওই এলাকার সীমান্তে কড়া নজর রেখেছে ভারত।

[আরও পড়ুন: ৯৫% সফল মিশন চন্দ্রযান ২, আশার কথা শোনালেন বিজ্ঞানীরা]

শুক্রবার বারামুল্লা জেলার সোপুর ডাঙেরপোরা এলাকার একটি বাড়িতে ঢুকে গুলি চালায় জঙ্গিরা। এর জেরে আড়াই বছরের এক শিশুকন্যা-সহ চারজন গুরুতর জখম হয়েছে। শনিবার তাদের মধ্যে আসমা নামে শিশুটির শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। তাকে দিল্লির এইমসে এয়ারলিফট করে আনার নির্দেশ দিয়েছেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল। এ বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে পাকিস্তান কাশ্মীরে অশান্তি তৈরির মরিয়া চেষ্টা করছে বলেও জানান তিনি।

শনিবার এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন শ্রীনগর থেকে ৭৫০-এর বেশি ট্রাক ফল নিয়ে যায়। গতকাল দুই পাকিস্তানি জঙ্গি এসে শ্রীনগরের বিশিষ্ট ফল ব্যবসায়ী হামিদুল্লা রাথের খোঁজ করছিল। কিন্তু, তিনি নমাজ বা অন্য কাজে থাকায় জঙ্গিরা খুঁজে পায়নি। পরে ওই ব্যবসায়ীর দুই কর্মচারীকে সঙ্গে নিয়ে পাঁচ কিলোমিটার দূরে তাঁর বাড়িতে চড়াও হয়। সেখানে গিয়ে ওই দুই কর্মচারীর পাশাপাশি হামিদুল্লার ছেলে মহম্মদ ইরশাদ ও আড়াই বছরের শিশুকন্যা আসমা জানের উপর নির্বিচারে গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়। ওই পাকিস্তানি জঙ্গিরা পাঞ্জাবি ভাষায় কথা বলছিল। ৩৭০ ধারা বাতিলের পর সন্ত্রাসকে হাতিয়ার করে কাশ্মীরে অশান্তি তৈরির সবরকম চেষ্টা করছে পাকিস্তান। কিন্তু, আমরা কাশ্মীরিদের উপর নেমে আসা যেকোনও আক্রমণ রুখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। কিছু পাকিস্তানি জঙ্গিরা অনুপ্রবেশ করে এই এলাকায় গন্ডগোলের পরিকল্পনা করছে। কিন্তু, ওরা যতই চেষ্টা করুক কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের কোনও ক্ষতি করতে পারবে না।’

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement