BREAKING NEWS

৩ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ মে ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

লকডাউনে বরাদ্দ চাল চেয়ে খাদ্যমন্ত্রীর কাছে শুনতে হল ‘যান গিয়ে মরুন’

Published by: Arupkanti Bera |    Posted: April 28, 2021 8:43 pm|    Updated: April 28, 2021 8:43 pm

Karnataka food and civil supplies minister asks a farmer to

উমেশ কাট্টি।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনে (Lockdown) সব থেকে সমস্যায় পড়েন ‘দিন আনি দিন খাই’ মানুষগুলি। তেমনই এক কৃষক রাজ্যের মন্ত্রীর কাছে জানতে চেয়েছিলেন কবে থেকে তাঁরা বরাদ্দ খাদ্যশস্য পাবেন? আর তার উত্তরে যা শুনতে হল এক মন্ত্রীর কাছ থেকে তা মনে হয় এর আগে কারও ভাগ্যে জোটেনি। কর্ণাটকের (Karnataka) খাদ্যমন্ত্রী উমেশ কাট্টির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ উঠেছে। কৃষকের সঙ্গে কথোপকথনের অডিও রেকর্ডিং বাইরে আসার পর আবার সাফাই দিতে শুরু করেছেন ওই মন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: করোনা সংকট মোকাবিলায় পুতিনের সঙ্গে ফোনে আলোচনা মোদির]

অডিও রেকর্ডে শোনা যাচ্ছে এক কৃষক উমেশ কাট্টিকে বলছেন, “স্যার এখন আপনি (রেশনে চালের পরিমাণ) ২ কেজি করে দিলেন। কী করে চলবে এতে?”  মন্ত্রী উত্তরে বলেন সরকার ৩ কেজি করে রাগিও দিচ্ছে। কিন্তু ওই কৃষক বলেন, উত্তর কর্ণাটকের রেশনে পাওয়া যাচ্ছে না। মন্ত্রী  বলেন, মে-জুন মাসে কেন্দ্রীয় সরকার ৫ কেজি করে চাল বা গম দেবে। কৃষক পালটা প্রশ্ন করেন, আপনারা কবে দেবেন? মন্ত্রী প্রতিশ্রুতি দেন, আগামী মাস থেকেই দেওয়া হবে। তখনই ওই কৃষক বলেন, “তত দিন কি আমরা না খেয়ে থাকব, না মরে যাব?” মন্ত্রী উমেশ কাট্টি এবার বলে বসেন, “মরে যাওয়াই ভাল। আসলে এই কারণেই আমরা খাদ্যশস্য দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছি। আমাকে আর ফোন করবেন না।”

[আরও পড়ুন: অবশেষে খোঁজ মিলল! কেন্দ্রীয় বাহিনীকে চরকি পাক খাইয়ে তারাপীঠ মন্দিরে অনুব্রত]

বিজেপি শাসিত কর্ণাটকের এই মন্ত্রীর মুখ থেকে এমন কথা শোনার পর নানা মহল থেকে মুখ্যমন্ত্রী বিএস ইয়েদুরাপ্পার কাছে দাবি জানানো হচ্ছে ওই মন্ত্রীকে বরখাস্ত করার। ইয়েদুরাপ্পার কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া না গেলেও বিরোধী কংগ্রেস সমালোচনা করতে ছাড়েনি। কংগ্রেস নেতা ডিকে শিবকুমার সরকারের সমালোচনা করে টুইট করেন।

চাপে পড়ে সাফাই দিতে গিয়ে উমেশ কাট্টি বলেন, কেউ ঠিকঠাক প্রশ্ন করলে তার ঠিকঠাক উত্তর পাবেন। এমন প্রশ্ন করলে আর কী উত্তর দেব।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement