২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  সোমবার ১৫ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ধর্মীয় পোশাক নয়, হিজাব মামলায় অন্তর্বর্তী নির্দেশ কর্ণাটক হাই কোর্টের

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: February 10, 2022 7:29 pm|    Updated: February 10, 2022 7:34 pm

Karnataka High Court Says, no hijab or religious attire till matter is decided, Classes must start | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যতদিন না হিজাব সংক্রান্ত মামলার নিষ্পত্তি হচ্ছে, ততদিন হিজাব-সহ কোনও ধরনের ধর্মীয় পোশাক পরা যাবে না স্কুল ও কলেজে। মঙ্গলবার জানিয়ে দিল কর্ণাটক হাই কোর্ট (Karnataka High Court)। এইসঙ্গে রাজ্যের স্কুল ও কলেজ খুলে দিতে বললেন বিচারপতিরা।

হিজাব বিতর্কে উত্তপ্ত রাজ্যে সাময়িকভাবে স্কুল ও কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কর্ণাটক সরকার। এদিন আদালত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পক্ষে মত দিল। আদালত জানায়, “ফের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা হোক। আমরা চাই রাজ্যে শান্তি ফিরুক। বিষয়টির যতদিন না নিষ্পত্তি হচ্ছে, ততদিন যেন কোনওরকম অশান্তির ঘটনা না ঘটে। কেউ যেন ধর্মীয় উসকানি না দেয়।”

[আরও পড়ুন: কর্ণাটকের হিজাব কাণ্ডে উলটো সুর! প্রতিবাদী মুসকানের পাশে আরএসএসের মুসলিম শাখা]

এদিন তিন বিচারপতির বৃহত্তরে বেঞ্চে মামলার শুনানিতে আইনজীবী সঞ্জয় হেগড়ে উডুপির একটি কলেজর প্রসঙ্গ টেনে বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে শান্তিপূর্ণ বৈঠকের পরেও মেয়েদের ক্লাসে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষার অধিকার চেয়েছে মাত্র।

সঞ্জয় আরও জানান, এই বিষয়ে রাজ্যের আইন তিনি পড়েছেন। সেখানে ইউনিফর্ম নিয়ে কোনও কথা লেখা নেই। যদিও এর উত্তরে বিচারপতিরা বলেন, আপনি কি বলতে চাইছেন, “শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কোনও ইউনিফর্ম থাকবে না?”

[আরও পড়ুন: হিন্দুদের ভাল মানেই রাষ্ট্রের ভাল, হায়দরাবাদে বিস্ফোরক RSS প্রধান ভাগবত]

এর পরেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার নির্দেশ দেয় আদালত। এইসঙ্গে জানানো হয়, যতক্ষণ না বিষয়টি নিষ্পত্তি হচ্ছে ততদিন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হিজাব-সহ কোনও ধরনের ধর্মীয় পোশাক পরে আশা যাবে না। উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার সকালে হিজাব সংক্রান্ত মামলাটিকে দ্রুত সুপ্রিম কোর্টে শুনানির আবেদন উঠেছিল। যদিও সেই আরজি খারিজ করে দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার উন্মত্ত হিন্দুত্ববাদী যুবকদের ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনির পালটা ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান তুলে খবরে এসেছিলেন কর্ণাটকের (Karnataka) এক মুসলিম তরুণী। বিবি মুসকান খান (Bibi Muskan Khan) নামের ওই তরুণীর সাহসিকতার জন্য গতকাল জমিয়তে উলামায়ে হিন্দ (Jamiat Ulama-i-Hind) ৫ লক্ষ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেছিল। আজ প্রতিবাদী মুসকানকে সমর্থন করে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের (RSS) মুসলিম শাখা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে