Advertisement
Advertisement

কাঠুয়া কাণ্ডে দোষীদের শাস্তির আরজি রাষ্ট্রসংঘের, দ্রুত বিচার চান মুখ্যমন্ত্রী

সন্ধ্যায় কাশ্মীরে মোমবাতি মিছিল।

Kathua rape: UN asks Govt to ensure justice
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:April 14, 2018 5:02 pm
  • Updated:December 7, 2018 1:42 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দেশের গণ্ডি ছাড়িয়ে কাঠুয়া গণধর্ষণ কাণ্ডের জের রাষ্ট্রসংঘেও। রাষ্ট্রসংঘের মুখপাত্র স্টিফেন দুজারিক শুক্রবারই সাংবাদিকদের জানান, কাঠুয়া কাণ্ডের খবর পেয়ে তাঁরা বাকরুদ্ধ।  জম্মু ও কাশ্মীরের কাঠুয়াতে যেভাবে বকেরওয়াল সম্প্রদায়ের মাত্র আট বছরের এক শিশুর উপর পাশবিক অত্যাচার করে তাকে হত্যা করা হয়েছে, দেখে চমকে গিয়েছেন রাষ্ট্রসংঘের তাবড় কর্তারাও। শিশুটিকে যারা হত্যা করেছে, তাদের শ্রুত শাস্তি দিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে আরজি জানিয়েছে রাষ্ট্রসংঘ।

এদিকে, মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি জম্মু ও কাশ্মীর হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতি রামলিঙ্গম সুধাকরের কাছে আবেদন জানিয়েছেন, ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট গঠন করে এই মামলার দ্রুত শুনানি হোক। এর আগে উপত্যকায় কখনও কোনও মামলার জন্য ফাস্ট ট্র্যাক কোর্ট গঠনের আবেদন জানায়নি রাজ্য। একইসঙ্গে দোষীদের চূড়ান্ত শাস্তিরও আবেদন জানিয়েছেন মেহবুবা মুফতি। অন্যদিকে, শনিবারও কাঠুয়া গণধর্ষণ কাণ্ড নিয়ে উত্তাল রইলো জাতীয় রাজনীতি। দেশ জুড়ে বিতর্কের মধ্যে পড়ে শুক্রবারই মুখ খুলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আশ্বাস দিয়েছেন, দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হবে।

[দোষীরা শাস্তি পাবেই, কাঠুয়া-উন্নাও কাণ্ডে অবশেষে মুখ খুললেন মোদি]

মোদি মুখ খোলার পরই কাঠুয়া গণধর্ষণে অভিযুক্তদের পাশে দাঁড়ানো মন্ত্রীদের সঙ্গে দূরত্ব বাড়িয়েছে বিজেপি। শুক্রবারই কাঠুয়া গণধর্ষণ কাণ্ডে অভিযুক্তদের সমর্থন করার অভিযোগ উঠেছিল বিজেপি যে দুই মন্ত্রী বিরুদ্ধে, সেই চন্দ্র প্রকাশ গঙ্গা এবং লাল সিং পদত্যাগ করেন। আজ তাঁরা পদত্যাগপত্র জমা দেন মুখ্যমন্ত্রীর কাছে।শনিবার দলের সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘গত পয়লা মার্চ কাঠুয়ায় মানুষ উত্তেজিত হয়ে উঠেছিলেন। আমাদের দুই মন্ত্রী সেদিন তাঁদের শান্ত করতে গিয়েছিলেন। সেখানেই কোনও একটা ভুল বোঝাবুঝি হয়। মন্ত্রীদের আরও সতর্ক থাকা উচিত ছিল। তবে তদন্ত প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করার কোনও ইচ্ছায় তাঁদের ছিল না। তাঁদের বিরুদ্ধে ধর্ষকদের আড়াল করার যে অভিযোগ উঠছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

কাঠুয়া গণধর্ষণ কাণ্ড কাশ্মীরে বিজেপি ও পিডিপির মধ্যে জোটেও চিড় ধরিয়ে দিয়েছে। শনিবার পিডিপির শীর্ষ নেতৃত্ব শ্রীনগরে এক উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকে বসে। দলের মুখপাত্র রফি আহমেদ মীর জানিয়েছেন, উপত্যকার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে এদিন বৈঠক করেন দলের শীর্ষ নেতৃত্ব। যদিও সূত্রের খবর, এদিনের বৈঠকে আগামী দিনে বিজেপির সঙ্গে দলের সমীকরণ কোন দিকে যাবে, সেই বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। এদিনই জম্মুর বার অ্যাসোসিয়েশন কাঠুয়া গণধর্ষণে আক্রান্ত শিশুটির পরিবারের জন্য পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ দাবি করেছে। সেই সঙ্গে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের জন্য উপযুক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থারও দাবি জানিয়েছেন তাঁরা। বার অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট বি এস শ্লাথিয়ার ডাকে আজ সন্ধ্যায় ভূস্বর্গে মৃত শিশুর স্মৃতিতে মোমবাতি মিছিল বেরোবে।

[ওদের ফাঁসি হোক, আর কিছু চাই না!’ কাতর আরজি আসিফার বাবার]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ