৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

লকডাউনের জের, কেরলে জোড়-বিজোড় নীতিতে গাড়ি চালানোর ঘোষণা পিনারাই বিজয়নের

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: April 17, 2020 11:40 am|    Updated: April 17, 2020 11:40 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা মোকাবিলায় দেশের অন্য রাজ্যগুলির তুলনায় এগিয়ে কেরল। এবার আরও একধাপ এগোল এই রাজ্য। প্রধানমন্ত্রীর নিয়ম মেনে ২০ এপ্রিলের পর রাজ্যে পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেও গাড়ি ব্যবহারে জোড়-বিজোড় পন্থা অবলম্বন করতে চান মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন (Pinarayi Vijayan)। তবে এই বিষয়ে মহিলারা বিশেষ ছাড় পাবেন বলে জানা যায়।

ইতিমধ্যেই কেরলে শুরু হয়েছে র‍্যাপিড ও র‍্যান্ডাম টেস্ট। ফলে অন্য রাজ্যগুলির তুলনায় এই রাজ্যে দ্রুত চিহ্নিত করা হয়েছে সংক্রমিতদের। তাই প্রধানমন্ত্রীর শর্ত মেনে ২০ এপ্রিলের পর রাজ্যে ছাড় দিলে যাতে পরিবহন ব্যবস্থাকে নিয়ন্ত্রণ করা যায় তাই আগের থেকেই জোড়-বিজোড় নীতিতে গাড়ি চালানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। ফলে লকডাউনের আবহে কিছু ছাড় পেলেও রোধ করা যাবে সংক্রমণ। অন্যদিকে নিয়ন্ত্রণেও থাকবে লকডাউনের পরিবেশ। তবে মহিলাদের এই জোড়-বিজোড় নীতির বাইরে রাখা হয়েছে। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানান কেরলের মত দেশকে সংক্রমণের ভিত্তিতে ৪টি জোনে ভাগ করে দিতে। তাতে দ্রুত সংক্রমিত রাজ্যগুলির প্রতি বিশেষ যত্ন নেওয়া সম্ভব হবে। কেরলের কারাসগোড়, কান্নুর, মাল্লাপুরম, কোঝিকোড়কে প্রথম জোনে রাখা হয়েছে। এই জেলাগুলিকে সবথেকে বেশি লোক করোনায় আক্রান্ত। দ্বিতীয় জোনে রয়েছে পাথানামথিট্টা, এর্নাকুলাম, কোলাম। এই জোনের হস্টস্পটগুলিকে চিহ্নিত করে সিল করে দেওয়া হয়েছে। রাজ্যের তৃতীয় জোনে রয়েছে আলাপুজ্ঝা, থিরুবনন্তপুরম, থ্রিশুর, ওয়ানাড, পালাক্কাড। এই জেলাগুলিতে তুলামূলকভাবে কম করোনায় দাপট। আর চতুর্থ জোনে রয়েছে কোট্টায়াম, ইদুক্কি। এই জেলাগুলিতে করোনার সংক্রমণ প্রায় নেই বললেই চলে।

[আরও পড়ুন:লকডাউনের মধ্যেই জাঁকজমক করে বিয়ে কুমারস্বামীর ছেলের, বিতর্কে কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী]

দেশের মধ্যে প্রথমে কেরলেই সংক্রমণ ধরা পড়লেও দ্রুততার সঙ্গে সচেতনতার পদক্ষেপ গ্রহণ করায় দেশের বাকি রাজ্যগুলির তুলনায় অনেক এগিয়ে কেরল। ফলে এলেক পর এক নয়া নীতির মাধ্যমে পরিস্থিতিও নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টায় রয়েছেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। বর্তমানে কেরলে করোনায় আক্রান্ত মোট ৩৯৪। যার মধ্যে ২৪৫ জনই সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

[আরও পড়ুন:ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা সর্বাধিক হতে পারে মে’র প্রথম সপ্তাহে!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement