২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মদ বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা শিথিল করল কেরলের বাম সরকার

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 9, 2017 3:54 am|    Updated: June 9, 2017 4:01 am

 Kerala Loosens Alcohol Ban, Minimum Drinking Age Raised To 23

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মদ কেনাবেচার উপর নিষেধাজ্ঞা খানিকটা হলেও শিথিল হল বাম শাসিত কেরলে। তবে ক্রেতার বয়স সংক্রান্ত প্রাথমিক নিষেধাজ্ঞা জারি থাকছে। একুশ বছর বয়েসের নীচে কোনও ক্রেতাকে মদ বিক্রি করা যেত না। সেই বয়সসীমা বাড়িয়ে তেইশ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। অন্যদিকে, পর্যটনকে চাঙ্গা করতে তিন তারা ও অন্যান্য বিলাসবহুল হোটেলে মদ রাখার ও বিক্রির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আগে পাঁচতারা হোটেলগুলিতে শুধু মদ বিক্রিতে ছা্ড় ছিল।

[‘গোটা দেশে আরএসএসের রাজনৈতিক মতাদর্শকে স্থাপন করতে চাইছে বিজেপি’]

২০১৪ সালে কংগ্রেস সমর্থিত জোট সরকার আগামী ১০ বছরের জন্য কেরলে মদ বিক্রি নিষিদ্ধ বলে ঘোষণা করে। তবে কয়েক সপ্তাহ আগে, রাজ্যের অর্থমন্ত্রী থমাস ইসাক এক বিবৃতিতে জানান, মদ বিক্রি থেকে মোটা রাজস্ব আদায় হয় রাজ্যের। যা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় রীতিমতো ক্ষতির মুখে পড়েছে কেরল। মদ বিক্রি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় টান পড়েছে পর্যটন শিল্পে। ফলে ক্ষতি হচ্ছে সেক্ষেত্রেও। তারপরেই মন্ত্রিসভার জরুরি বৈঠক ডাকেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। মদ বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আংশিকভাবে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য।

[শুধু পর্দায় নয় পর্দার বাইরেও তিনি ওয়ান্ডার উওম্যান, জানেন কেন?]

পরিসংখ্যান বলছে, দেশের মধ্যে সর্বাধিক মদ কেনাবেচা হয় কেরলে। কংগ্রেস সরকারের এই সিদ্ধান্ত রাজ্যকে বড়সড় ক্ষতির মুখে ঠেলে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন বিজয়ন। আগের সরকারের মদ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত সম্পূর্ণ ব্যর্থ বলে ঘোষণা করেন তিনি। তবে মদ খাওয়ার প্রচার বা বিজ্ঞাপন সরকারের পক্ষ থেকে কখনই করা হবে না। তবে একে নিষিদ্ধ ঘোষণা করার পক্ষেও তারা নন। তাই এবার মিলল ছাড়। পাশাপাশি, সরকারের পক্ষ থেকে বেশ কিছু নেশামুক্তি কেন্দ্র খোলারও ভাবনা চিন্তা করা হচ্ছে। যাতে মদের ক্ষতিকারক দিক সমাজে প্রভাব না ফেলে। তাছাড়াও, এবিষয়ে সচেতনতামূলক প্রচারও করবে রাজ্য সরকার।

[রাস্তায় নেমে দার্জিলিংয়ে আটকে পড়া পর্যটকদের আশ্বস্ত করলেন মমতা]

আজই কেরলে এতদিন ধরে বন্ধ থাকা বারগুলি খুলছে। তবে তাদের লাইসেন্স পুনর্নবীকরণের জন্য নতুন করে আবেদন করতে হবে বলে নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য। তবে সরকারের এই নির্দেশ কার্যকর করা হবে চলতি বছরের পয়লা জুলাই থেকে। রাজ্যের পর্যটনকেন্দ্রগুলোতে সকাল দশটা থেকে রাত এগারোটা পর্যন্ত বারগুলি খোলা থাকবে। অন্যান্য জায়গায় খোলা থাকবে সকাল এগারোটা থেকে রাত এগারোটা পর্যন্ত। গোটা রাজ্যে ১৩৩ টি বার খুলতে চলেছে পয়লা জুলাই থেকে। তবে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মতো জাতীয় সড়কের পাঁচশো মিটারের মধ্যে কোনও বার রাখা হচ্ছে না। অবশ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমেন চান্ডি। এই সিদ্ধান্ত মদ ব্যাবসায়ী সংগঠনের সঙ্গে রাজ্য সরকারের যোগসাজশ বলেই ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে