BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রার্থী হচ্ছেন না আদবানি-যোশী, বাংলার তালিকা ঘোষণা হবে আজ!

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: March 20, 2019 9:30 am|    Updated: March 20, 2019 9:30 am

L.K. Advani, Murli Manohar Joshi not to contest LS Polls

নন্দিতা রায়, নয়াদিল্লি: বিজেপির প্রার্থীতালিকায় চমক থাকছেই। নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারবেন কি না, সেই হিসেবের অঙ্ক কষেই এবার টিকিট দিতে চলেছে তারা। আর তার জন্য বহু বর্তমান সাংসদদের নাম কাটা পড়ছে। মঙ্গলবার দিল্লির দীনদয়াল উপাধ্যায় মার্গে দলের সদর দপ্তরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও দলের সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ-র নেতৃত্বে সন্ধ্যা থেকে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটির বৈঠকে এই সিদ্ধান্তই নেওয়া হয়েছে। তবে এদিনও পশ্চিমবঙ্গের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করা হয়নি। জানা গিয়েছে, আজ বুধবার উত্তরপ্রদেশ ও পশ্চিমবঙ্গের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করতে ফের বৈঠকে বসবে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটি। তবে বয়সের কারণে লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলী মনোহর যোশীর মতো নেতাদের বিজেপি আর প্রার্থী করছে না।

[ঘরের প্রার্থী না হলে ‘অন্য ফুলে’ ভোট দেওয়ার হুঁশিয়ারি বিজেপি কর্মীদের]

মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ম্যারাথন বৈঠক চলেছে বিজেপির সদর দপ্তরে। এদিনের বৈঠকেই দলের মার্গদর্শক মন্ডলীর সদস্য লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলী মনোহর যোশী এবং শান্তা কুমার নির্বাচন লড়বেন না বলেই সিদ্ধান্ত হয়েছে। বয়সজনিত কারণে আদবানি নিজেই নির্বাচনে লড়তে চান না বলে দলের কাছে ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। দল তাঁর ইচ্ছাকে সম্মান দিয়েছে। গুজরাটের গান্ধীনগর আসনে আদবানির পরিবর্তে তাঁর ছেলে জয়ন্ত বা মেয়ে প্রতিভা আদবানিকে প্রার্থী করা হতে পারে বলেই সূত্রের খবর। তবে এ বিষয়ে শেষ সিদ্ধান্ত নেবেন আদবানিই। কারণ চিরকালই তিনি পরিবারতন্ত্রের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। যোশীর কাজে খুব একটা খুশি ছিল না দল। কানপুর আসন থেকে তাঁকে এবারে প্রার্থী করা হবে না বলেই ঠিক হয়েছে। কারণ তাঁর জেতার বিষয়ে সংশয় রয়েছে। তাছাড়া যোশীর বয়স পঁচাশি পার হয়েছে।

হিমাচল প্রদেশের কাংড়া থেকে সাংসদ ছিলেন শান্তা কুমার। তিনি নিজেই এবার প্রার্থী হতে চাননি। তাঁর জায়গায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জগত প্রকাশ নাড্ডা প্রার্থী হতে পারেন বলে জল্পনা রয়েছে। গুজরাট থেকে দলের নেতারা অমিত শাহকে লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী হওয়ার দাবি করেছিলেন। কিন্তু শাহ লোকসভা নির্বাচন লড়বেন না বলেই ঠিক হয়েছে। কর্ণাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ইয়েদুরাপ্পা লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর সাংসদ ছেলেকেই শিমোগা থেকে ফের প্রার্থী করা হলেও ইয়েদিকে প্রার্থী করতে রাজি হয়নি দল। সে রাজ্যেরই প্রয়াত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনন্তকুমারের জায়গায় তাঁর স্ত্রীকে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি।

তবে বিজেপির সবচেয়ে বড় চমক থাকবে ছত্তিশগড়ে। শোনা যাচ্ছে, ছত্তিশগড়ে বিজেপির যে দশজন সাংসদ রয়েছেন, তাঁদের কাউকেই এবার টিকিট দিচ্ছে না দল। রাজ্যের ১১টি আসনের প্রতিটির জন্য নতুন মুখ আনা হচ্ছে। এদিন রাতেই ছত্তিশগড়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা ও বিজেপির সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অনিল জৈন এ কথা জানিয়েছেন। বৈঠকে হাজির ছিলেন তিনিও। জৈন বলেছেন, “ছত্তিশগড়ের বর্তমান সমস্ত সাংসদকে পরিবর্তন করা হচ্ছে। কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিটি তা অনুমোদন করেছে। আমরা ১১ জন নতুন প্রার্থী দেবো এবং জিতবই।” রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী রমন সিং এবার লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হবেন বলেই ঠিক হয়েছে। টিকিট দেওয়ার ক্ষেত্রে এবার প্রার্থীর জেতার সম্ভাবনার বিষয়টি বিজেপি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেবে বলে বহু আগে থেকেই শোনা গিয়েছিল। ছত্তিশগড় দিয়ে সেই কাজ শুরু করে দিয়েছে তারা। দেশের সবথেকে বড় রাজ্য উত্তরপ্রদেশের ক্ষেত্রেও একই ফর্মুলা কাজে লাগানোর সম্ভাবনা রয়েছে।

[টাকা দিয়ে ভোট কেনা হয় না রাজ্যে, জানাল নির্বাচন কমিশন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে