২৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  রবিবার ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাবা জেলে ভাত খাচ্ছেন, আর ছেলে কেক কেটে জন্মদিন পালনে মত্ত। লালুপুত্রের এমন কাণ্ড দেখে ক্ষুব্ধ নেটিজেনরা। ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন সবাই। কিন্তু তাতে কী আর আসে যায়! লালুপুত্র তেজস্বী মেতে আপন খেয়ালে। মেতে সাড়ম্বরে নিজের জন্মদিন পালনে।

সোমবার, ১১ নভেম্বর ৩০-এ পা দিলেন লালুপুত্র। সেই উপলক্ষে রাঁচি থেকে পাটনা যাচ্ছিলেন লালুপুত্র তেজস্বী যাদব। সূত্রের খবর এমনটাই। তাঁর জন্মদিন উপলক্ষে এই ছোট্ট যাত্রায় রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) নেতা তেজস্বী যাদবের চাটার্ড ফ্লাইটে যাত্রা করেন। শুধু তাই নয়, আর সেই চাটার্ড ফ্লাইটেই কেক কাটতে দেখা যায় তেজস্বী যাদবকে। চাটার্ড বিমানে বসে তাঁর এই কেক কাটাকে ঘিরেই শুরু হয়েছে তুমুল বিতর্ক। সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়ে গিয়েছে ট্রোলিং।

[আরও পড়ুন : টানাপড়েন শেষ, শিব সেনা-এনসিপি-কংগ্রেস ‘জোটে’ নয়া সমীকরণ মহারাষ্ট্রে ]

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, ধবধবে সাদা কুর্তা পরে পার্টির কিছু নেতার সঙ্গে ব্রেকফাস্ট করছেন তেজস্বী।লালুপুত্রের এমন ছবি দেখে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যাপক হারে খোঁচা দিতে শুরু করেছেন নেটপাড়ার মানুষজন। কেউ বলছেন, ‘বিহার আবার গরীব কোথায়? লালুপুত্র তো প্রাইভেট জেটে কেক কাটছেন।’ টুইটারে আর একজন আবার লিখছেন, ‘উনি কি সত্যিই গরিব বিহারের নেতা?’

পশু খাদ্য কেলেঙ্কারিতে আলাদা আলদা ছয়টি মামলায় যুক্ত লালুপ্রসাদ যাদব। পশু খাদ্য তহবিলের ৯৭০ কোটি টাকার কেলেঙ্কারির অভিযোগে সাংসদ পদও খোয়ান বিহারের এই পোড় খাওয়া রাজনৈতিক নেতা। অভিযোগ, লালুপ্রসাদ যাদব বিহারের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন ১৯৯৬ সালে চাইবাসা ট্রেজারি থেকে গবাদি পশুর খাবার কেনার উদ্দেশ্যে তুলে নেওয়া হয় ৩৭ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা। ২০১৩ সালের অক্টোবরে এই তহবিল তছরূপের দায়ে অবিভক্ত বিহারের মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ ও জগন্নাথ মিশ্র-সহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়। 

[আরও পড়ুন : দেশে আর্থিক মন্দার জের, ১২ বছরে সবচেয়ে কম বিদ্যুতের চাহিদা]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং