BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২ ডিসেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এক্সিট পোলের ফলের পরই মধ্যপ্রদেশে শুরু বিধায়ক কেনাবেচা! এবার কাঠগড়ায় কংগ্রেস

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 8, 2020 8:44 am|    Updated: November 8, 2020 8:44 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিহারের পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের ২৮ আসনের মহাগুরুত্বপূর্ণ উপনির্বাচনের এক্সিট পোলের ফলাফলও প্রকাশ্যে এসেছে।। আর তাতে সামান্য হলেও স্বস্তি ফিরেছে বিজেপি শিবিরে। এক্সিট পোলের ইঙ্গিত অনুযায়ী শিবরাজ সিং চৌহানের ( Shivraj Singh Chouhan) সরকারের উপর আপাতত কোনও সংকট নেই। কিন্তু তাতেও নিশ্চিন্ত হতে পারছেন না মধ্যপ্রদেশের চারবারের মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর অভিযোগ এক্সিট পোলের ফলাফল প্রকাশ্যে আসতেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথ নাকি বিজেপির (BJP) বিধায়কদের ফোন করে বিভিন্ন ধরনের ‘অফার’ দিচ্ছেন। তাঁদের কংগ্রেসে যোগদানের জন্য মন্তিত্বের টোপ দেওয়া হচ্ছে।

মধ্যপ্রদেশে গত ৩ নভেম্বর ২৮ আসনের নির্বাচন হয়েছে। এই উপনির্বাচনের উপরই নির্ভর করছে শিবরাজ সিং চৌহান সরকারের ভবিষ্যৎ। এ বছরের গোড়ার দিকে কংগ্রেস নেতা জ্যোত্যিরাদিত্য সিন্ধিয়া (Jyotiraditya Scindia) সদলবলে ‘হাত’ ছেড়ে পদ্মে নাম লেখান। তাঁর সঙ্গে বিজেপিতে যোগ দেন কংগ্রেসের ২২ জন বিধায়ক। পরে একে একে আরও ৩ জন বিধায়ক গিয়েছেন গেরুয়া শিবিরে। আরও ৩ বিধায়কের মৃত্যুর ফলে মোট ২৮ আসনের এই উপনির্বাচন হয়েছে। ২৮টির মধ্যে ২৫ আসনেই কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে যাওয়া বিধায়কদের প্রার্থী করেছে গেরুয়া শিবির। এদের মধ্যে ১২ জন আবার রাজ্যের মন্ত্রী। ক্ষমতায় টিকে থাকতে হলে ২৮টি আসনের মধ্যে অন্তত ৯টি আসনে জিততে হবে বিজেপিকে। গতকাল বিহারের পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশের এক্সিট পোলেরও ফলাফল প্রকাশ করেছে কয়েকটি সংস্থা। যাতে স্পষ্ট ইঙ্গিত মিলেছে, আপাতত বিজেপি সরকারের উপর কোনও সংকট নেই।

[আরও পড়ুন: বিহারে পরিবর্তনের ইঙ্গিত! মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসতে পারেন লালুপুত্র তেজস্বী]

ইন্ডিয়া-টুডে অ্যাক্সিস মাই ইন্ডিয়ার সমীক্ষা বলছে মধ্যপ্রদেশের ২৮ আসনের মধ্যে ১৬-১৮টি আসন পেতে পারে বিজেপি। অন্যদিকে বিরোধী কংগ্রেস পেতে পারে ১০-১২টি আসন। দৈনিক ভাস্কর বলছে, বিজেপি পেতে পারে ১৪-১৬ আসন এবং কংগ্রেস পেতে পারে ১০-১৩ আসন। টাইমস নাও-এর সমীক্ষা বলছে বিজেপি পেতে পারে ১৭ আসন। কংগ্রেস পেতে পারে ১০ আসন এবং একটি আসন পেতে পারে বিএসপি। এই সমীক্ষার ফল প্রকাশ্যে আসার পরই শিবরাজ সিং চৌহান অভিযোগ করেছেন,”কংগ্রেস এবং কমল নাথ (Kamal Nath) বিজেপি বিধায়কদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছে। কংগ্রেস ঘোড়া কেনাবেচার করলেও সেটাকে ম্যানেজমেন্ট বলে চালিয়ে দেয়। কিন্তু সত্যিটা হল, বিজেপি কখনও ঘোড়া কেনাবেচা করে না। কংগ্রেস বিধায়করা স্বেচ্ছায় গেরুয়া শিবিরে যোগ দিয়েছেন। কমল নাথ যতই চেষ্টা করুন বিজেপি বিধায়করা তাঁর ডাকে সাড়ে দেবেন না। আমাদের দল আদর্শের ভিত্তিতে চলে।” কমল নাথ আবার বলছেন, ‘উপনির্বাচনে হার স্পষ্ট দেখতে পাচ্ছে বিজেপি। আর তাই ভুল বকছেন শিবরাজ।’ 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement