২৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শনিবার ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রথমে মনে করা হয়েছিল, অযোধ‌্যা রায়ের জন‌্য মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণেও দেরি হবে। জল্পনা আরও উসকে দিয়েছিলেন শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত। শনিবারের বহুপ্রতীক্ষিত রায় ঘোষণার আগেই তিনি টুইট করেছিলেন, ‘প্রথমে মন্দির, পরে সরকার। অযোধ‌্যায় মন্দির, মহারাষ্ট্রে সরকার।’

[আরও পড়ুন: ফলপ্রসূ দীর্ঘদিনের লড়াই, অযোধ্যা মামলার রায় শুনে যেতে পারলেন না সুষমা-বাজপেয়ীরা]

কিন্তু, বেলা গড়াতে গড়াতে জল গড়াল অন‌্যদিকে। দিন কয়েকের দ্বন্দ্ব-মতপার্থক‌্য, মন্তব‌্য-পালটা মন্তব্যের পালা চলার পর অবশেষে শনিবার মহারাষ্ট্রে সরকার গড়ার আগ্রহ দেখাতে বিজেপিকে আমন্ত্রণ জানালেন রাজ‌্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি। শনিবার রাতে রাজভবনের তরফে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, ‘একক বৃহত্তম দল হিসেবে বিজেপিকে সরকার গড়ার বিষয়ে আগ্রহ দেখাতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন রাজ‌্যপাল।’

প্রসঙ্গত, শুক্রবারই রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপালের কাছে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেন ফড়ণবিস। তাঁকে তদারকি মুখ‌্যমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ করেন রাজ‌্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি। ইস্তফা দিয়ে ফড়ণবিস বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রীর পদ ভাগাভাগি নিয়ে শিবসেনার সঙ্গে কোনও কথা হয়নি। ফোনে শিবসেনা প্রধানের সঙ্গে কথা বলেছি। কিন্তু, এখনও কোনও সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারিনি।’

[আরও পড়ুন: ‘রিভিউ পিটিশন দাখিল করব না’, সুপ্রিম নির্দেশকেই স্বাগত জানালেন সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান]

এর কিছু সময় পরই শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে বলেন, ‘দেবেন্দ্র ফড়ণবিস আমাকে মিথ‌্যেবাদী বলছেন। জীবনে মিথ‌্যা বলিনি।’ ঠাকরে এও দাবি করেন যে চলতি বছরের গোড়াতেই অমিত শাহর সঙ্গে ৫০-৫০ ফর্মুলা নিয়ে কথা হয়েছিল। প্রসঙ্গত, শনিবার মধ‌্যরাতেই আগের সরকারের মেয়াদ ফুরিয়েছে। গত ২৪ অক্টোবর ভোটের ফল বেরলেও অর্ধেক মুখ‌্যমন্ত্রিত্বের জন‌্য শিবসেনা গোঁ ধরে থাকায় মহারাষ্ট্রে এখনও সরকার গঠন করা যায়নি।তবে শনিবার রাজ্যপাল ডাক দেওয়ার পর পরিস্থিতি কী হয় সেটাই এখন দেখার।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং