৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সংক্রমণের ভয়, মহারাষ্ট্রের জেল থেকে জামিন দেওয়া হল ৭,২০০ জন বন্দিকে

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: May 17, 2020 6:10 pm|    Updated: May 17, 2020 10:42 pm

Maharashtra Govt release 7,200 prisoner from jail to decongest

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মহারাষ্ট্রের জেল থেকে মুক্তি দেওয়া হল প্রায় সাত হাজার দুশো জন বন্দিকে। জেলের মধ্যে কয়েদিদের ভিড় কমিয়ে আনতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়। পরে আরও বন্দিদের মুক্তি দেওয়ার কথা চিন্তা করা হচ্ছে বলে জানান মহারাষ্ট্র জেল কর্তৃপক্ষ।

দেশের মধ্যে করোনার জেরে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত মহারাষ্ট্র। ক্রমেই বাড়ছে সংক্রমণের মাত্রা। তাই জেলগুলির থেকে ৭ হাজার দুশো জন বন্দিদের মুক্তি দেওয়া হয়। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলগুলির জেল থেকে বন্দিদের জামিন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই নির্দেশ মেনেই মহারাষ্ট্রের বিভিন্ন জেল মিলিয়ে মোট ৭,২০০ জনকে বন্দিদের মুক্তি দেওয়া হয়। পরে আরও ১০ হাজার বন্দিদের মুক্তি দেওয়ার কথা ভাবনা-চিন্তা করা হচ্ছে বলে জানান মহারাষ্ট্র জেল কর্তৃপক্ষ। তবে মহারাষ্ট্র সরকার জানায়, যে বন্দিদের ৭ বছরের জন্য কারাদণ্ড দেওয়া হয় তাদেরকেই অস্থায়ীভাবে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হবে। এক জেল আধিকারিক বলেন, “লকডাউনের আগে রাজ্যের ৬০টি জেলে মোট ৩৫ হাজার বন্দিরা রয়েছেন বলে জানা যায়। সেখানে মাত্র সাত হাজার দুশো জনকে সাময়িকভাবে জামিন দেওয়া হয়েছে। আরও ১৭ হাজার বন্দিদের অস্থায়ীভাবে জামিন দেওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন:বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত ৭২৭ জন চিকিৎসক ও ৬০০ জন নার্স]

মুম্বইয়ের আর্থার রোডের জেলে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ায় নড়েচড়ে বসে মহারাষ্ট্রের রাজ্য সরকার। তখনই তারা একটি উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের আয়োজন করেন। সেখানে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, জেলে থাকা বন্দিদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে। তাই রাজ্যের প্রতিটি জেল থেকে অর্ধেক বন্দিদের অস্থায়ী জামিন দেওয়া প্রয়োজন। লকডাউনের পূর্বেইই আর্থার রোডের জেলে বন্দিদের মোট সংখ্যা ছিল ২ হাজার তিনশো। তাদের মধ্যে থেকে সাতশো জনকে অস্থায়ী জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়। এখনও আর্থার রোডের জেলে ১ হাজার ৫৭২ জন বন্দি রয়েছেন।

[আরও পড়ুন:লকডাউনে কাজ নেই, গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করলেন টেলিভিশন তারকা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে