১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ কার্তিক  ১৪২৬  শনিবার ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বচসার জেরে আর একসঙ্গে থাকতে রাজি হয়নি লিভ ইন পার্টনার। তাই তাঁর বাড়ির সামনে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মঘাতী হলেন এক যুবক। শনিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের মহারাজাগঞ্জে। মৃত ২৩ বছরের ওই যুবকের নাম কিষাণ আর্য। যদিও মেয়েটির বাড়ির লোকেরা তাঁকে পুড়িয়ে মেরেছে বলে অভিযোগ মৃত যুবকের পরিবারের। তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনাটির তদন্ত করছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: মাঝ আকাশে ঝড়ের কবলে এয়ার ইন্ডিয়ার দুটি বিমান, পড়ল বাজও]

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, উত্তরপ্রদেশের আর্য চকের বসন্তপুর গ্রামে বাস করতেন কিষাণ। বাড়ি থেকে একটু দূরে একটি কাপড়ের দোকানে কাজ করার সময় একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক তৈরি হয় তাঁর। দু’বছর আগে মেয়েটি যখন কিশোরী ছিল তখন তাকে নিয়ে পালিয়ে ছিলেন কিষাণ। এরপরই তাঁর নামে স্থানীয় থানায় মেয়েকে অপহরণের অভিযোগ করে কিশোরীটির বাবা। তার ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে আদালত তাঁকে জেলে পাঠায়। আর জেল খেটে বের হওয়ার কিছুদিন পরেই ফের মেয়েটিকে নিয়ে পালিয়ে যান তিনি। ততদিনে মেয়েটির বয়স ১৮ পার হয়ে যাওয়ায় তার বাড়ির লোক আর কিছুই করতে পারেননি। তাই কাছাকাছি একটি জায়গায় ঘর ভাড়া নিয়ে মেয়েটির সঙ্গে লিভ ইন সম্পর্কে থাকতে শুরু করেন কিষাণ। কিন্তু, ১১ দিন আগে তাঁর সঙ্গে ঝগড়া করে মহারাজাগঞ্জের ফারেন্দা রোড এলাকায় বাপের বাড়িতে চলে আসে মেয়েটি। আর তারপর শনিবার তার বাড়ির সামনে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করলেন ওই যুবক। তাঁকে বাঁচাতে গিয়ে মেয়েটির বাবাও জখম হয়েছেন। তাঁকে জেলা হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে।

এপ্রসঙ্গে ওই এলাকার এএসপি জানান, মেয়েটির পরিবারের তরফে ওই যুবক আত্মঘাতী হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। কিন্তু, তা মানতে রাজি নন ছেলেটির বাড়ির লোকেরা। তাঁদের অভিযোগ, কিষাণের লিভ ইন পার্টনারের বাডির লোকই তাঁকে পুড়িয়ে মেরেছে। যদিও মেয়েটির বাড়ির লোকের দাবি, শনিবার সন্ধ্যায় কিষাণ আচমকা পেট্রল নিয়ে তাঁদের বাড়ি ঢুকে পড়েন। তারপর নিজের গায়ে তা ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেন। আর ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। তবে এই ঘটনার পরে কিষাণ লিভ ইন পার্টনার ওই যুবকের মৃতদেহ চিনতে অস্বীকার করে। বলে, সে ওই যুবককে চেনে না।

[আরও পড়ুন:চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে আনা হল না ধর্ষণের অভিযোগ, চরম হতাশ নির্যাতিতা ছাত্রী]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং