BREAKING NEWS

৯ মাঘ  ১৪২৮  রবিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

সন্ত্রাস মোকাবিলায় মনমোহনের থেকে মজবুত মোদি, স্বীকারোক্তি শীলা দীক্ষিতের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 14, 2019 6:37 pm|    Updated: March 14, 2019 6:37 pm

Manmohan's terror response weaker than Modi: Sheila Dikshit

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভা ভোট শুরু হতে আর এক সপ্তাহও বাকি নেই। এর মধ্যে চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি করলেন কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেত্রী তথা দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শীলা দীক্ষিত। দলকে অস্বস্তিতে ফেলে দিল্লি কংগ্রেসের সভানেত্রী স্বীকার করলেন জঙ্গিদের বিরুদ্ধে বার্তা দেওয়ার ক্ষেত্রে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের থেকে শক্তিশালী নরেন্দ্র মোদি। শীলা দীক্ষিত বলেন, মোদি পুলওয়ামা হামলার পর যেভাবে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান নিয়েছেন, মনমোহন সিংহ ২৬/১১ মুম্বই হামলার পর ততটা দৃঢ় এবং সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিতে পারেননি।

[রাফালের নথি শত্রুদের হাতে! বিপন্ন দেশের নিরাপত্তা]

একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে সাক্ষাৎকারে শীলা দীক্ষিত এই কথা বলেন। তবে, তিনি সেই সঙ্গে মনে করিয়ে দেন নরেন্দ্র মোদি এসব করছেন শুধুমাত্র রাজনৈতিক ফায়দা তোলার জন্য। তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, পুলওয়ামা হামলার পর যেভাবে ভারত প্রত্যাঘাত করছে, তাতে নরেন্দ্র মোদির ভাবমূর্তি একজন শক্তিশালী নেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে কিনা? এই প্রশ্নের উত্তরে দিল্লির প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমি মেনে নিচ্ছি মনমোহন সিং মোদির মতো এত দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলেন না। কিন্তু এটাও মানতে হবে যে মোদি যা করছেন সবই রাজনীতির স্বার্থে।” শীলা দীক্ষিতের দাবি, মনমোহন সিংয়ের আমলে মুম্বই হামলার পর পাকিস্তানকে যোগ্য প্রত্যুত্তর না দেওয়া হলেও, জাতীয় নিরাপত্তা নিয়ে কংগ্রেস কোনওদিনই আপস করেনি। এ প্রসঙ্গে তিনি ইন্দিরা গান্ধী জমানার উদাহরণ টানেন। শীলা দীক্ষিতের এই বক্তব্যের পর থেকেই বিরোধী শিবির তাঁর বক্তব্যকে হাতিয়ার করে কংগ্রেসকে কটাক্ষ করার চেষ্টা করছে। যদিও, পরে দিল্লি প্রদেশ কংগ্রেস সভানেত্রী সাফাই দিয়েছেন, তাঁর বক্তব্যের ভুল ব্যাখ্যা করা হয়েছে।

[ভাঙন অব্যাহত, বিজেপিতে যোগ দিলেন বিক্ষুব্ধ তৃণমূল বিধায়ক অর্জুন সিং]

তবে, দিল্লির প্রাক্তন মু্খ্যমন্ত্রী যতই সাফাই দিন, তাঁর এই মন্তব্যকে বিজেপি যে হাতিয়ার করবে তা বলাই যায়। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য ভারতের এয়ারস্ট্রাইকের পর থেকেই সেই ঘটনাকে হাতিয়ার করে ভোটের ময়দানে নেমে পড়েছে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের বক্তব্য, কেন্দ্রে শক্তিশালী সরকার থাকার ফলেই জঙ্গিদের বিরুদ্ধে এত কড়া অবস্থান নেওয়া সম্ভব হয়েছে। তাছাড়া, মুম্বই হামলার পর এয়ারস্ট্রাইক বা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক কেন করা হয়নি, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলছে বিজেপি। এই অবস্থায় শীলা দীক্ষিতের বক্তব্য তাদের নতুন হাতিয়ার হতে চলেছে।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে