২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

দিল্লি সরকারের সুপারিশ, মুক্তি পেল জেসিকা লালের হত্যাকারী মনু শর্মা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: June 2, 2020 5:21 pm|    Updated: June 2, 2020 5:21 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রায় ১৭ বছর ধরে জেলের সাজা ভোগ করার পর মুক্তি পেল জেসিকা লাল হত্যাকাণ্ডে দোষী সাব্যস্ত মনু শর্মা। কারাগারে ভাল ব্যবহারের জন্য তাঁর মুক্তি পরোয়ানায় সই করেন দিল্লির রাজ্যপাল অনিল বৈজলাল।

[আরও পড়ুন: প্রায় ৫০% বাড়ল ‘এভিয়েশন ফুয়েলে’র দাম, জ্বালানি জ্বালায় জর্জরিত বিমান সংস্থাগুলি]

সোমবার নয়াদিল্লির তিহার জেল থেকে আরও ১৭ জনের সঙ্গে মনু শর্মাকে মুক্তি দেওয়া হয়। জানা গিয়েছে, কারাগারে ব্যবহার ভাল থাকায় তার মুক্তির জন্য দিল্লির রাজ্যপাল অনিল বৈজলালের কাছে সুপারিশ করে দিল্লি সরকারের অধীনে থাকা ‘Delhi Sentence Review Board’। গত মাসে এই বিষয়ে দিল্লির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈনের উপস্থিতিতে একটি বৈঠকে মনু শর্মার মুক্তির কথা বলে বোর্ড। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে জেলে ভিড় এড়াতে বেশ কয়েকজন বন্দিকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছে মনু শর্মাও।

উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালের ৩০ এপ্রিল দক্ষিণ দিল্লির ‘Tamarind Court’ নামের একটি রেস্তরাঁয় পানীয় জোগান দিতে রাজি না হওয়ায় জেসিকা লালকে গুলি করে হত্যা করে মনু শর্মা। অভিযোগ, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা বিনোদ শর্মার ছেলে হওয়ায় তদন্তের গতি পরিভাবিত করার চেষ্টা করে সে। কিন্তু তাতেও শেষরক্ষা হয়নি। দীর্ঘদিন ধরে চলা মামলার শেষে ২০০৬ সালে মনু শর্মাকে দোষী সাব্যস্ত করে আদালত। যাবজ্জীবন জেলের সাজা দেওয়া হয় তাকে। প্রসঙ্গত, জেসিকা লাল হত্যা মামলায় মনু শর্মার পক্ষে দাঁড়িয়েছিলেন বিখ্যাত আইনজীবী রাম জেঠমালানি। এ মামলায় মনু শর্মার কৌঁশুলি হওয়ার জন্য রাম জেঠমালানিকে ব্যাপক সমালোচিত হতে হয়। তাঁর মেয়ে রানি জেঠমালানিও বাবার সমালোচনায় সরব হন। তবে তাতে থেমে যাননি রাম জেঠমালানি। হাইকোর্ট এবং সুপ্রিম কোর্টে মনু শর্মার হয়ে লড়ে গিয়েছিলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: কাশ্মীরে ঘর বানালে ভুগতে হবে ফল, ‘ভারতীয়’দের হুমকি পাক জেহাদি সংগঠনের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement