Advertisement
Advertisement
Mayawati

‘বিজেপির হাত ধরার আগে রাজনীতি ছাড়ব’, আচমকাই অবস্থান বদল মায়াবতীর

তাঁর মন্তব্যের অপব্যাখ্যা হয়েছে বলে অভিযোগ।

Bengali news: Mayawati Clarifies 'Vote BJP' Remark | Sangbad Pratidin
Published by: Paramita Paul
  • Posted:November 2, 2020 2:53 pm
  • Updated:November 2, 2020 4:24 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটল ডেস্ক: দিন কয়েক আগেই বলেছিলেন, সপা প্রার্থীকে হারাতে বিজেপিকে সমর্থন করতে রাজি তিনি। সোমবার  সেই অবস্থান বদল করলেন বহুজন সমাজবাদি পার্টির (বিএসপি বা বসপা) নেত্রী মায়াবতী (Mayawati)। বললেন, “বিজেপির সঙ্গে জোট বাঁধার আগে রাজনীতি থেকে অবসর নেব।” রাজনৈতিক মহলের মতে, সপা এবং কংগ্রেসের (Congress) লাগাতার আক্রমণের মুখেই এহেন ভোলবদল করলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: মথুরার মন্দিরে নমাজ পড়ার জের, FIR চার ব্যক্তির নামে]

দিন কয়েক আগেই রাজ্যসভা বা রাজ্যের বিধান পরিষদ নির্বাচনে বিজেপির প্রার্থীকে সমর্থনের কথা জানিয়েছিলেন মায়াবতী। সে প্রসঙ্গে সোমবার তিনি অভিযোগ করেন, রাজনৈতিক ফায়দার জন্য তাঁর বক্তব্যের অপব্যাখ্যা করেছে সমাজবাদি পার্টি ও কংগ্রেস। বসপা (BSP) নেত্রীর কথায়, “ভবিষ্যতে কোনও নির্বাচনেই বিজেপির সঙ্গে বিএসপির জোট হতে পারে না। আমাদের আদর্শ সর্বধর্ম সেবা। আর বিজেপি আপাদমস্তক সাম্প্রদায়িক দল। ওঁদের সঙ্গে জোট করার আগে আমি রাজনীতি থেকে অবসর নেব।” মায়াবতী আরও বলেন, তিনি সপা প্রার্থীকে সমর্থন করবেন না বলে জানিয়েছিলেন। বহুজন সমাজবাদি পার্টির দিক থেকে  মুসলিম সম্প্রদায়ের সমর্থন  কেড়ে নিতেই তাঁকে বিজেপির সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ মায়াবতীর।

Advertisement

প্রসঙ্গত, মায়াবতীর দলের অনেকেই চাইছিলেন, রাজ্যসভা নির্বাচনে আলাদা প্রার্থী না দিয়ে সমাজবাদী পার্টিকেই সমর্থন করুক বিএসপি (BSP)। কিন্তু মায়াবতী তাঁদের কথা না শুনে আলাদা প্রার্থী দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। জানিয়েছিলেন, আর অখিলেশ যাদবের (Akhilesh Yadav) সঙ্গ দেবে না তাঁর দল। বরং সমাজবাদী পার্টিকে (Samajwadi Party) হারাতে সর্বশক্তি দিয়ে ঝাঁপাবে। আর সেজন্য যদি বিজেপিকে সমর্থন করতে হয়, তাতেও আপত্তি নেই বহুজন সমাজ পার্টির। ২০২২ সালে উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বেহেনজির এই ডিগবাজি বেশ তাৎপর্যপূর্ণ ছিল।

Advertisement

এদিকে তাঁর এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করে বিএসপিকে বিজেপির ‘বি টিম’ বলে দাগিয়ে দেয় কংগ্রেস। যার জেরে দলের অন্দরেই তীব্র অসন্তোষের মুখে পড়েন মায়াবতী। রাজ্য রাজনীতিতেও আরও কোণঠাসা হয়ে পড়েন। তাই এবার তিনি তড়িঘড়ি নিজের অবস্থান বদল করলেন বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ