১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  শনিবার ৩ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কেন রাষ্ট্রসংঘে চিনের বিরুদ্ধে ভোট দিল না ভারত? জবাব বিদেশমন্ত্রকের

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: October 7, 2022 8:49 pm|    Updated: October 7, 2022 9:38 pm

MEA India explains the stance of abstaining on voting against China at UN | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনের (China) বিরুদ্ধে উইঘুর (Uyghur) মুসলিমদের উপরে অত্যাচার চালানোর অভিযোগ উঠেছে বারবার। রাষ্ট্রসংঘে সেই বিষয়ে আলোচনার প্রস্তাব উঠলেও চিনের বিরুদ্ধে ভোট দেয়নি ভারত। শুক্রবার এই প্রসঙ্গে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করল ভারত (India)। বিদেশমন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, সকল দেশের মানবাধিকার রক্ষার দাবিতে অনড় থাকবে ভারত। উইঘুর মুসলিমদের দাবিকে সম্মান জানানোর পক্ষেও সওয়াল করেন বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রসংঘে (United Nations) চিনের বিরুদ্ধে ভোট দেয়নি ভারত। সেই নিয়ে যথেষ্ট বিতর্ক শুরু হয় আন্তর্জাতিক মহলে। এহেন পরিস্থিতিতে শুক্রবার সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছেন ভারতের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অরিন্দম বাগচি। তিনি বলেন, “মানবাধিকার রক্ষায় সর্বদাই সচেষ্ট থাকবে ভারত। এই বিষয়ে আলোচনা করতে সমর্থন রয়েছে। কিন্তু আমরা মনে করি, একটি নির্দিষ্ট দেশকে নিয়ে আলোচনা করলে সমস্যার সমাধান হবে না। “

[আরও পড়ুন: এখনও মেটেনি ভারত-চিন সীমান্ত সমস্যা, জানাল বিদেশমন্ত্রক]

উইঘুর মুসলিমদের নাম না করে অরিন্দম বলেছেন, “শিনজিয়াং প্রদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের যে অভিযোগ উঠেছে, সেই রিপোর্ট দেখেছে ভারত। শিনজিয়াং অঞ্চলে উইঘুরদের মানবাধিকার সুরক্ষিত রাখতে হবে। আশা করি, এই বিষয়ের সঙ্গে জড়িতরা পরিস্থিতি সম্পর্কে সঠিকভাবে সিদ্ধান্ত নেবে।” তবে চিনের প্রতি কোনওরকম কড়া বার্তা দেওয়া হয়নি ভারতের তরফ থেকে।

শিনজিয়াং প্রদেশে মানবাধিকার লঙ্ঘন নিয়ে বিতর্কের একটি খসড়া প্রস্তাব পেশ করা হয় বৃহস্পতিবার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই প্রস্তাব খারিজ হয়ে যায় ভোটাভুটিতে। পরিষদের ৪৭টি সদস্য দেশের মধ্যে ১৭টি দেশ প্রস্তাবের পক্ষে সায় দিলেও বিরোধিতা করে ১৯টি দেশ। ভোটদান থেকে বিরত থাকে ১১টি দেশ। সেই তালিকায় ভারত ছাড়াও রয়েছে ব্রাজিল, ইউক্রেন, মেক্সিকোর মতো দেশ। খসড়া প্রস্তাবটি পেশ করেছিল কানাডা, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, নরওয়ে, সুইডেন, ব্রিটেন, আমেরিকার মতো দেশগুলির সম্মিলিত গ্রুপ। তবে শেষ পর্যন্ত এই রিপোর্ট নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে আলোচনা হয়নি।

[আরও পড়ুন:অধিকৃত কাশ্মীরকে ‘আজাদ’ সম্বোধন, ফের বিতর্ক উসকে দিলেন মার্কিন প্রতিনিধি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে