BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ২৭ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

স্কুলের ফি দেওয়ার ক্ষমতা ছিল না বাবার, চাওয়ালার মেয়ে আজ বায়ুসেনার ফাইটার পাইলট

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 23, 2020 9:21 pm|    Updated: June 23, 2020 9:22 pm

Meet Aanchal Gangwal, Tea Seller's daughter who became IAF Fighter Pilot

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বপ্ন দেখা ভাল। নিজের উপর আত্মবিশ্বাস থাকলে সেই স্বপ্ন একদিন ঠিক পূরণ হবেই। এমনই আত্মবিশ্বাস ছিল তরুণী আঁচল গাঙ্গোয়ালের মনে। অদম্য ইচ্ছাশক্তিকে পাথেয় করে তাই শেষ পর্যন্ত নিজের স্বপ্নপূরণ করতে পেরেছে আঁচল। ২৪ বছর বয়সী তরুণী সব বাধা পেরিয়ে চাওয়ালার মেয়ে ভারতীয় বায়ুসেনার ফ্লাইং অফিসার কমিশনড হল। কিছুদিন আগেই স্বপ্নপূরণ হয়েছে আঁচলের। কিন্তু তাঁর এই চলার পথ খুব একটা মসৃণ ছিল না। এমনও সময় গিয়েছে, যখন তাঁর স্কুল ফি দেওয়ার টাকা ছিল না তাঁর বাবার কাছে।

লকডাউনের জন্য মেয়ের এই গৌরবের সাক্ষী থাকতে পারেননি বাবা সুরেশ গাঙ্গোয়াল। কিন্তু মেয়েকে দূর থেকেই প্রচুর আশীর্বাদ করেছেন তিনি। মধ্যপ্রদেশের নীমুচ জেলার বাসিন্দা সুরেশ চা-বিক্রেতা। কিন্তু মেয়ের স্বপ্নপূরণে বাধা হতে দেননি তিনি। তবে একদিনেই এই স্বপ্ন দেখেননি আঁচল। ২০১৩ সালে কেদারনাথে ভয়াবহ দুর্যোগের সময় বায়ুসেনার বীরত্বের ভিডিও টিভিতে অবাক চোখে দেখেছিলেন আঁচল। বায়ুসেনার চপার দুর্গতদের সাহায্যে যেভাবে কাজ করেছিল, সেনাকর্মীরা যেভাবে উদ্ধারকাজে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন তাই উদ্বুদ্ধ করে আঁচলকে।

[আরও পড়ুন: ​দিল্লি হিংসা কাণ্ডে অবশেষে জামিন পেলেন জামিয়ার অন্তঃসত্ত্বা ছাত্রী সফুরা]

স্কুলজীবনে খুবই মেধাবী আঁচলের আরেকটা শখ ছিল বাস্কেট বল। কিন্তু কেদারনাথ বিপর্যয়ের সময় বায়ুসেনা কর্মীদের কাজ দেখে নিজের লক্ষ্য স্থির করে ফেলে আঁচল। এরপর বায়ুসেনায় যোগ দেওয়ার জন্য কঠোর অধ্যবসায় শুরু হয় তাঁর। একবারেই সাফল্য আসেনি। ছবারের চেষ্টায় বায়ুসেনায় যোগ দিতে পারেন আঁচল। সুরেশ জানিয়েছেন, ‘টাকার জন্য একদিন আমার পড়াশোনা থেমে যায় দশম শ্রেণিতে। তারপর সেই যে চায়ের কেটলি তুললাম, আজও সেই কাজই করে চলেছি। কিন্তুন মেয়ের স্বপ্নপূরণে বাধা হতে দিনই টাকাকে। কখনও স্কুল ফি দিতে সমস্যা হয়েছে। তখন ধারদেনা করে মেয়ের পড়াশোনার খরচ চালিয়েছি। কিন্তু আমার জন্য মেয়ে হেরে যাক এটা হতে দিইনি।’

আজ চাওয়ালার মেয়ে গোটা মধ্যপ্রদেশ তথা দেশের গর্ব। আঁচলকে নিজে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। কিশোরী আঁচল স্বপ্ন দেখেছিল, একদিন আকাশে উড়বে সে। গগনভেদী যুদ্ধবিমানে বিশ্বজয় করবে। ২৪ বছর বয়সে সেই স্বপ্নপূরণ হল তাঁর।

[আরও পড়ুন: লাদাখে যুদ্ধের আবহেই রাশিয়ার কাছে S-400 সমরাস্ত্রের দ্রুত ডেলিভারি চাইবেন রাজনাথ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে