১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  সোমবার ৩০ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মেহবুবা মুফতি ও ফারুখ আবদুল্লার ভারতে থাকার অধিকার নেই, তোপ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: October 27, 2020 10:38 pm|    Updated: October 27, 2020 10:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: জম্মু ও কাশ্মীরে ফের ৩৭০ ধারা চালুর দাবিতে একজোট হয়েছে পিডিপি ও ন্যাশনাল কনফারেন্স। একসময়ে ঘোর বিরোধী থাকলেও জেল থেকে বেরোনোর পর ফারখ আবদুল্লার নেতৃত্বে গুপকার ডিক্লেরেশনের যোগ দিয়েছেন পিডিপি প্রধান মেহবুবা মুফতি। তারপর থেকেই একযোগ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে তোপ দাগছেন তাঁরা। ভূস্বর্গে ৩৭০ ধারা ফেরানোর দাবি জানাচ্ছেন। এর জেরে মঙ্গলবার তাঁদের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন কেন্দ্রীয় সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রল্লাদ যোশী (Pralhad Joshi)। জম্মু ও কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর ভারতে থাকার কোনও অধিকার নেই বলে মন্তব্য করলেন।

এপ্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘মেহবুবা মুফতি (Mehbooba Mufti) ও ফারুখ আবদুল্লা (Farooq Abdullah)’র ভারতে থাকার কোনও অধিকার নেই। কারণ, চিন যখন আমাদের আক্রমণের চেষ্টা করছে তখন ওনাদের মধ্যে একজন বলছেন চিনের সাহায্য নিয়ে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা ফিরিয়ে আনবেন। এর মাধ্যমে আন্তর্জাতিক মহলের কাছে আপনারা কী বার্তা দিতে চাইছেন? আর অন্যজন বলছেন ভারতের পতাকা সম্মান জানাবেন না। তাহলে তাঁর এদেশের থাকার কী অধিকার আছে?’

[আরও পড়ুন: বিসর্জনে গন্ডগোলের জেরে বিহারে মৃত যুবক, ভাইরাল পুলিশের লাঠিপেটার ভিডিও]

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই একটি সাক্ষাৎকারে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহারের জন্য বিজেপির বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লা। এবিষয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে বলেছিলেন, ‘গত বছর যে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করা হয়েছিল তা ফের চিনের সাহায্যে জম্মু ও কাশ্মীরে ফিরিয়ে আনা হবে।’ অন্যদিকে মেহবুবা মুফতি জানিয়েছিলেন, ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করে কাশ্মীরের পতাকা ফিরিয়ে আনা না হলে তিনি তেরঙ্গা পতাকা উত্তোলন করবেন না।  তাঁদের এই বক্তব্যের বিরোধিতা করে গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে তীব্র আক্রমণ করা হয়। অনেকে তাঁদের পাকিস্তানে পাঠিয়ে দেওয়ার কথাও বলেন। আজ সেই বিষয়েই কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন প্রল্লাদ যোশী।

[আরও পড়ুন: দিল্লি হাই কোর্টের নির্দেশে স্বস্তি, আপাতত কারাবাস নয় প্রাক্তন মন্ত্রী দিলীপ রায়ের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement