১২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

রেশন না পেয়ে রাস্তায় শ্রমিকরা, বোঝাতে গিয়ে আক্রান্ত পুলিশকর্মী

Published by: Paramita Paul |    Posted: May 4, 2020 12:09 pm|    Updated: May 4, 2020 4:57 pm

Migrant labourer staged protest amid Lock down in Ludhiana

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের মাঝে ফের শ্রমিক বিক্ষোভ। অভিযোগ, মিলছে না পর্যাপ্ত রেশন। যেখানে তাঁরা কাজ করতেন, সেই মালিকও তাঁদের পাওয়া টাকা আটকে রেখেছে। এদিকে কেন্দ্র নির্দেশ দেওয়া সত্ত্বেও তাঁদের বাড়ি ফেরানোর উপযুক্ত ব্যবস্থা করছে না রাজ্য সরকার। একাধিক অভিযোগে রবিবার লুধিয়ানার জাতীয় সড়ক আটকে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন কয়েক শো শ্রমিক। পরিস্থিতি সামাল দিতে বিশাল পুলিশবাহিনী ঘটনাস্থলে আসে। কিন্তু পুলিশকর্মী ও গাড়ি লক্ষ্য করে ইট ছুঁড়তে থাকে শ্রমিক। শেষমেশ ঘণ্টা কয়েক পর দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিলে বিক্ষোভ ওঠে। এলাকায় শান্তি বজায় রাখতে পুলিশ টহলদাড়ি চলছে। এদিকে সোমবার শ্রমিক বিক্ষোভে উত্তাল হল সুরাটেও পুলিশকে উদ্দেশ্য করে ইট পাটকেল ছোঁড়া হয়।

লকডাউনের শুরু থেকেই সবচেয়ে বিপাকে পড়েছেন পরিযায়ী শ্রমিকরা। ভিনরাজ্যে কাজ করতে গিয়ে আটকে পড়েছেন তাঁরা। কাজ বন্ধ থাকায় বেতন মিলছে না। খাবার পয়সাটুকু নেই অনেকের কাছে। মাথাগোঁজার আশ্রয়টুকুও মিলছে না। ফলে কেউ হেঁটে তো কেউ সাইকেল চালিয়ে কয়েক শো মাইল পেড়িয়ে গ্রামে পরিবারের কাছে ফিরতে চাইছেন। সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলিকে পরিযায়ী শ্রমিকদের দায়িত্ব নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। দিন কয়েক আগে পরিযায়ী শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনতে বিশেষ ট্রেন চালানোর অনুমতিও দেওয়া হয়েছে। তারপরেও পরিস্থিতি আয়ত্বে আসেনি। বহু রাজ্যে এখনও শ্রমিক বিক্ষোভ চলছে। যেমন লুধিয়ানাতে একাধিক দাবিতে রাস্তায় বসে সামাজিক দূরত্ব বিধিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন শ্রমিকরা।

[আরও পড়ুন : পরিযায়ী শ্রমিকদের টিকিটে ৮৫ শতাংশ ভরতুকি দিচ্ছে রেল, দাবি বিজেপির]

বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের অভিযোগ, একদিকে কর্তৃপক্ষ তাঁদের বেতন দিচ্ছে না। উপরন্তু সরকারি রেশনও মিলছে না। হেলপলাইন নম্বরে ফোনও করেও সমস্যার সুরাহা হয়নি। এমনকী, বাড়ি ফেরার ট্রেনের কী ব্যবস্থা করা হচ্ছে, সে সম্পর্কেও তাঁদের সঙ্গে কেউ যোগাযোগ করেনি। পরিস্থিতি সামাল দিতে গিয়ে হামলার মুখে পড়ে পুলিশকর্মীরা। পরে অব্শ্য বিশাল পুলিশকর্মী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। এ প্রসঙ্গে লুধিয়ানার পুলিশ কমিশনার রাকেশ আগরওয়াল বলেন, “এডিসিপি ও মহকুমা শাসক শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলছেন। আমরা চেষ্টা করছি ওঁদের কাছে পর্যাপ্ত রান্না করা খাবার পৌঁছে দেওয়ার। কেউ যাতে ক্ষুধার্ত না থাকে। তাঁদের বাড়ি ফেরানোর প্রক্রিয়া নিয়েও কয়েকদিনের মধ্যে আলোচনা করা হবে। তবে কেউ যদি এলাকার শান্তি শৃঙ্খলা নষ্ট করার চেষ্টা করে, তার বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন : ফেসবুকের পর সিলভার লেক, Reliance Jio-তে ফের বিনিয়োগ মার্কিন সংস্থার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে