২১ আষাঢ়  ১৪২৭  সোমবার ৬ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ফেসবুকের পর সিলভার লেক, Reliance Jio-তে ফের বিনিয়োগ মার্কিন সংস্থার

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: May 4, 2020 10:39 am|    Updated: May 4, 2020 10:39 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফেসবুকের পর এবার Reliance Jio-তে বিনিয়োগ করতে চলেছে মার্কিন সংস্থা সিলভার লেক। সোমবার একটি বিবৃতি দিয়ে এই খবর জানিয়েছে রিলায়্যান্স ইনডাস্ট্রিজ। বলা হয়েছে, জিও-তে ৫ হাজার ৬৫৬ কোটি টাকা বা ৭৪৬.৭৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে সংস্থাটি।

[আরও পড়ুন: ‘অসহায় পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরার খরচ দেবে কংগ্রেস’, বড় ঘোষণা সোনিয়ার]

গত এপ্রিল মাসে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মেও পা রাখে সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক (Facebook)। ৪৩ হাজার ৫৭৪ কোটি টাকায় রিলায়েন্স জিও’র ৯.৯ শতাংশ শেয়ার কিনে নেয় সংস্থাটি। তারপরই ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা কর্ণধার মার্ক জুকারবার্গ জানান, বিশ্বজুড়ে ফেসবুকের গ্রাহক সংখ্যা আরও বাড়াতেই জিও’র সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছে তারা। সেই পথে হেঁটেই এবার ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে নামল মার্কিন বেসরকারি ইকুইটি সংস্থা সিলভার লেক।সংস্থাটির বিনিয়োগের জেরে ভারতীয় মুদ্রায় জিও-র মোট বাজার দর বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪.৯০ লক্ষ কোটি টাকা।  

এই লগ্নি নিয়ে রিলায়্যান্স ইনডাস্ট্রিজ-এর কর্ণধার মুকেশ অম্বানি বলেন, “অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পার্টনার হিসেবে আমি সিলভার লেক-কে স্বাগত জানাচ্ছি। এই পদক্ষেপের ফলে ভারতের ডিজিটাল ইকোসিস্টেম ও ডিজিটাল প্লাটফর্মের ভারতীয় গ্রাহকরা লাভবান হবেন।” এদিকে, সিলভার লেক-এর অন্যতম শীর্ষ কর্তা ইগন ডারব্যান বলেন, “জিও প্লাটফর্ম বিশ্বের শীর্ষ সংস্থাগুলির মধ্যে অন্যতম। এর শীর্ষে রয়েছে অত্যন্ত শক্তিশালী ও উদ্ভাবনী শক্তিসম্পন্ন ম্যানেজমেন্ট টিম। মুকেশ আম্বানির সঙ্গে সহযোগিতা করতে পেরে আমরা সম্মানিত বোধ করছি।”

উল্লেখ্য, ফেসবুকের সঙ্গে রিলায়েন্স জিও’র রেকর্ড অর্থের চুক্তির পরই এশিয়ার ধনীতম ব্যক্তির তকমা পেয়েছেন মুকেশ আম্বানি। তবে ঋণের বোঝাও চেপেছে মুকেশ আম্বানির সংস্থার উপর। সেই চাপ লাঘব করতে বেশ কিছুদিন ধরেই বিভিন্ন ব্যবসায় বিলগ্নিকরণের চেষ্টা চালাচ্ছে রিলায়েন্স। ১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিময়ে সৌদি তেল শোধন সংস্থা আরামকোকে নিজের ২০ শতাংশ বেচে দেওয়ার কথা ভাবনাচিন্তা করছে রিলায়েন্স পেট্রো। গুগলের সঙ্গেও একটি পৃথক বিলগ্নিকরণের প্রস্তাব আলোচনার পর্যায়ে রয়েছে।                    

[আরও পড়ুন: ‘ভিনরাজ্যে থাকা মানেই শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেনের সুবিধা নয়’, নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement