২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  বুধবার ১০ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

ফের অমানবিক দিল্লি, নাবালিকাকে গণধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে খুন

Published by: Kishore Ghosh |    Posted: February 21, 2022 5:20 pm|    Updated: February 21, 2022 5:32 pm

Minor girl strangulated to death after gang-rape in Delhi | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লিতে (Delhi) ধর্ষণের ঘটনা ঘটেই চলেছে। গত মাসে ৮ বছরের এক শিশুকন্যা গণধর্ষিত হয়। এর পর ক’ দিন আগে ৮৭ বছরের এক বৃদ্ধার ধর্ষণের ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। এবার এক ১৪ বছর বয়সি নাবালিকাকে গণধর্ষণ (Gangrape) করে তাকে খুন করা হল। অভিযোগ, ওই নাবালিকাকে ধর্ষণ করার পর শ্বাসরোধ করে খুন করে দুই ব্যক্তি। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত একজন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে পেরেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘটনাটি ১৪ ফেব্রুয়ারির। ১৫ ফেব্রুয়ারি নাগাদ তা প্রকাশ্যে আসে। নাবালিকা আগের দিন থেকে নিরুদ্দেশ থাকায় পরিবারের তরফে স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগ জানানো হয়। এদিকে তদন্তে নেমে পুলিশ কিছুতেই নাবালিকার খোঁজ পাচ্ছিল না। এর মধ্যেই নিরালা এলাকার এক ব্যবসায়ী পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তিনি জানান, কিছুদিন শহরের বাইরে ছিলেন। ফিরে এসে দেখেন তাঁর বন্ধ দোকানের ভিতর থেকে বিশ্রী গন্ধ বের হচ্ছে। যে কর্মীকে দোকানের দায়িত্ব দিয়ে গিয়েছিলেন তাকেও খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এর পর দ্রুত ওই দোকানে হানা দেয় দিল্লি পুলিশের একটি দল।

[আরও পড়ুন: ফের জেলে লালুপ্রসাদ? পশুখাদ্য মামলায় ৫ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ CBI আদালতের]

শেষ পর্যন্ত ওই দোকান থেকেই নাবালিকার পচা-গলা দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। জানা গিয়েছে, বস্তার ভিতর নাবালিকার দেহ ঢুকিয়ে তার উপর গোবর চাপা দেওয়া হয়েছিল। এদিকে দেহ উদ্ধারের পরে ডিসিপি ব্রিজেন্দ্র যাদবের নেতৃত্বে একটি বিশেষ বাহিনী গঠন করা হয়েছে। ওই বাহিনী তদন্তে নেমে এখনও পর্যন্ত একজন অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করতে পেরেছে।

[আরও পড়ুন: হিজাব বিতর্কের মাঝেই কর্ণাটকে খুন বজরং দলের নেতা, ‘মুসলিম গুন্ডাদের কাজ’, মন্তব্য মন্ত্রীর]

ডিসিপি বিজেন্দ্র যাদব বলেন, “সোমবার এক অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছি আমরা। সে মুম্বইয়ে পালিয়ে যাচ্ছিল। ” পুলিশের ধারণা কাজ দেওয়ার নাম করেই দোকানে আনা হয় ওই নাবালিকাকে। এর পর দোকানের শাটার নামিয়ে ধর্ষণ করে শ্বাসরোধ করা হয় নাবালিকাকে।  গ্রেপ্তার হওয়া অভিযুক্ত ব্যক্তিকে জিজ্ঞাসাবাদ করে অন্য অভিযুক্তের নাগাল পাওয়ার চেষ্টা করছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে