০৯  আষাঢ়  ১৪২৯  রবিবার ২৬ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

মোদি-হাসিনার সঙ্গে মমতাকে নৈশভোজে আমন্ত্রণ রাষ্ট্রপতির

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: April 5, 2017 11:09 am|    Updated: June 23, 2022 7:50 pm

Modi-Mamata-Hasina to share meal at Raisina Hills

কিংশুক প্রামাণিক, বাঁকুড়া: বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মানে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের দেওয়া নৈশভোজে উপস্থিত থাকছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মোদি-মমতা ছাড়াও নৈশভোজে বেশ কয়েকজন বিশিষ্ট ব্যক্তি উপস্থিত থাকবেন৷

নৈশভোজের আমন্ত্রণ আগেই পেয়েছেন মমতা৷ বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ দিন কয়েক আগে মমতাকে ফোন করে আমন্ত্রণ জানান৷ বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, দিল্লিতে রাষ্ট্রপতির নৈশভোজে তিনি যোগ দেবেন৷ যেহেতু ভারত-বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয় রয়েছে, সেহেতু শেখ হাসিনার সম্মানে প্রণব মুখোপাধ্যায়ের দেওয়া এই নৈশভোজে যোগ দিচ্ছেন এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী৷ হাসিনার এই ভারত সফর বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ৷ দু’দেশের মধ্যে সীমান্ত, জঙ্গি সমস্যা, তিস্তা জলচুক্তির মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হবে৷ বিভিন্ন বিষয়ে আদানপ্রদানও হবে৷ দিল্লি-বাংলাদেশ বাস পরিষেবার উদ্বোধন হবে৷ মমতা ইতিপূর্বে জানিয়ে দিয়েছেন, ভারত-বাংলাদেশের মৈত্রীর সম্পর্ক অত্যন্ত দৃঢ়৷ তিস্তা জলচুক্তি হোক অথবা পশ্চিমবঙ্গের স্বার্থ বিঘ্নিত করে নয়৷ সবদিক খতিয়ে দেখা হোক৷

[সম্প্রীতির নজির গড়ে মুসলিমদের টাঙ্গাই এ বঙ্গে হচ্ছে শ্রীরামের রথ]

মুখ্যমন্ত্রী এখন জেলা সফরে রয়েছেন৷ বুধবার দুপুরে বাঁকুড়ার শুলুকপাহাড়ি হাটের ময়দানে প্রশাসনিক জনসভা করেন তিনি৷ সেখানে ৯১টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ৭১টি প্রকল্পের শিলান্যাস করেন তিনি৷ তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বাঁকুড়ার খাতড়া মহকুমা এলাকায় ভৈরববাঁকি নদীর উপর একটি সেতু৷ যে সেতু তৈরি হওয়ায় জঙ্গলমহলের যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও সুগম হল৷ এদিনের সভায় হাজির হয়েছিলেন বহু মানুষ৷ এরপর মুখ্যমন্ত্রীর পুরুলিয়া সফর রয়েছে৷ আসানসোল নতুন জেলার উদ্বোধন করবেন৷ ৭ তারিখ কলকাতায় ফিরে তিনি রাতেই দিল্লি যাচ্ছেন৷

[লক্ষাধিক টাকার গয়না চুরি গেল ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর বাড়ি থেকে]

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই দিল্লি সফর বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ৷ এই সফরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও সাক্ষাত্‍ হতে পারে মমতার৷ রাজনৈতিক দিক থেকে বিজেপির বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেস লড়াই আন্দোলন করছে৷ কিন্তু কেন্দ্র-রাজ্যের সম্পর্কটি অন্য সম্পর্ক৷ জনস্বার্থবিরোধী কোনও কাজে কেন্দ্রের সমালোচনা করলেও ভাল কাজে যে সহযোগিতা থাকবে, এই বার্তা আগেই দেওয়া হয়েছে৷ আর যেখানে বৈদেশিক সম্পর্কের বিষয়টি জড়িত সেখানে হাসিনার ভারত সফরকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিয়েই দেখা হচ্ছে৷ মমতার এই দিল্লি সফরে কেন্দ্র-রাজ্যের সম্পর্কের আগামী দিনে আরও বেশ খানিকটা উন্নতি ঘটবে বলে মনে করছে বিশেষজ্ঞ মহল৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে