BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  শনিবার ৮ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অমিতাভ বচ্চনের বাংলো দেখানোর নাম করে বিদেশিনীকে ধর্ষণ, অধরা অভিযুক্ত

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2018 8:54 pm|    Updated: July 1, 2018 8:54 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিদেশিনী ধর্ষণ। এবার ঘটনাটি ঘটল দেশের বাণিজ্য নগরী মুম্বইতে। বলিউড শাহেনশা অমিতাভ বচ্চনের বাংলো দেখানোর নাম করে ইটালিয়ান যুবতীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল ট্যুর গাইডের বিরুদ্ধে। ১৪ জুন ঘটনাটি ঘটেছে মুম্বইয়ে কোলাবায়। নির্যাতিতা তরুণী ইটালির নাগরিক। তিনি পেশায় ব্যাংক কর্মী। ঘটনার দিন রাতেই কোলাবা থানায় ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেনি নির্যাতিতা। পরে সেই মামলা জুহু থানায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

[বেকারত্ব নিয়ে তামাশা, তুতো ভাইয়ের পরিবারকে কুপিয়ে খুন যুবকের]

জানা গিয়েছে ভারত ভ্রমণের উদ্দেশ্যে গত ডিসেম্বরে এদেশে আসেন বিদেশিনী। গত ১৪ তারিখে তিনি মুম্বই ঘুরে দেখার সিদ্ধান্ত নেন। সেই মতো হোটেলের কাছাকাছি জুহু এলাকা থেকেই একটি ট্যুর বাসে ওঠেন। যেটি তাঁকে গোটা মুম্বই শহরের দর্শনীয় স্থান ঘুরিয়ে দেখাবে। সেই বাসেই ছিল অভিযুক্ত যুবক। সে বিদেশিনীর কাছে এসে নিজেকে ট্যুর গাইড হিসেবে পরিচয় দেয়। রাত সাতটা নাগাদ সারা দিনের দর্শনসূচি সম্পূর্ণ করে জুহুতে ফিরে আসে বাস। বিদেশিনী বাস থেকে নামর পরই তাঁকে অমিতাভ বচ্চনের বাংলো দেখানোর অফার দেয় ওই যুবক। একই সঙ্গে প্রতিশ্রুতি দেয় তাঁকে হোটেল পর্যন্ত ছেড়েও দিয়ে আসবে সে। ওই তরুণী যুবকের কথায় সম্মতি দিতেই একটি ক্যাব ডাকে সে। চালককে কোলাবা যাওয়ার নির্দেশ দেয়। পথে গাড়ি থামিয়ে মদও কেনে। অভিযোগ, এরপর থেকেই ট্যুর গাইডের ভাবভঙ্গি বদলে যেতে থাকে। প্রথমেই সে প্রায় জোর করে তরুণীকে মদ্যপানে বাধ্য করে। তারপর আপত্তিকরভাবে তাঁর গায়ে হাত দিতে থাকে। এরপরেই তাঁকে ধর্ষণ করে অভিযুক্ত। কিছুটা যাওয়ার পর গাড়ি থেকে নির্যাতিতাকে নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত।

[ছত্তিশগড়ে পুলিশের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে নিকেশ মাও নেতা]

নির্যাতিতা তরুণী প্রাথমিক ধাক্কা কাটিয়ে উঠে ইটালির দূতাবাসে ফোন করে ঘটনার বিবরণ দেন। সেখান থেকেই তাঁকে থানায় অভিযোগ জানাতে বলা হয়। এর কিছুক্ষণের মধ্যেই নিকটবর্তী কোলাবা থানায় গিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন বিদেশিনী। পরে জুহু থানায় তা স্থানান্তর করা হয়। অভিযোগ পেয়েই ধৃতের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। ক্যাবটিকে চিহ্নিত করার চেষ্টা চলছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement