BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রিয়েল লাইফেও ‘প্যাডম্যান’ অক্ষয়, বাস ডিপোয় মিলবে স্যানিটরি ন্যাপকিন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: February 16, 2018 7:10 pm|    Updated: September 16, 2019 4:55 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছবির বিষয়বস্তু ঋতুস্রাব নিয়ে কুসংস্কারমুক্ত হয়ে মহিলাদের প্যাড ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা। আর তাই নিজের ছবিকে শুধু বড়পর্দাতেই বেঁধে রাখতে চাননি অক্ষয় কুমার। যে সচেতনতার বার্তা রিলে দেওয়ার চেষ্টা করেছেন, রিয়েল লাইফেও তা গোটা দেশে ছড়িয়ে দিতে বদ্ধপরিকর বলিউড অভিনেতা। শুধু বক্স অফিসে বাণিজ্যের স্বার্থেই যে ছবিটি তৈরি করা হয়নি, অক্ষয়ের নয়া উদ্যোগে সে কথাই যেন প্রমাণিত।

[প্রেমের নয়া পরিভাষা নিয়ে ফের পর্দায় সৌমিত্র-অপর্ণা জুটি]

খাওয়া, ঘুমের মতো এটিও একটি শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া। কিন্তু মহিলাদের ঋতুস্রাব নিয়ে এখনও এ দেশে কুসংস্কারের শেষ নেই। এ নিয়ে প্রকাশ্যে আলোচনা করতেও ইতস্তত করে নারীসমাজ। একবিংশ শতকের গোড়াতেই বাস্তবের মাটিতে দাঁড়িয়ে সমাজের এই ট্যাবু ভেঙে ফেলার ডাক দিয়েছিলেন অরুণাচলম মুরুগানান্থম। তাঁর সেই বলিষ্ঠ পদক্ষেপকেই রুপোলি পর্দায় তুলে ধরেছেন খিলাড়ি কুমার। আর ‘প্যাডম্যান’ হিসেবে এবার তিনিও মহিলাদের সজাগ করতে তৎপর। শিবসেনা নেতা আদিত্য ঠাকরের সঙ্গে হাত মিলিয়ে মুম্বই এসটি বাস ডিপোয় স্যানিটরি প্যাডের একটি ভেন্ডিং মেশিন বসালেন অক্ষয়। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে সুপারস্টার লেখেন, “এমন স্যানিটরি প্যাডের ভেন্ডিং মেশিন মুম্বই ও গোটা মহারাষ্ট্রের অন্যান্য স্থানে বসানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। আশা করি, খুব তাড়াতাড়ি গোটা দেশেই এমন মেশিন দেখতে পাওয়া যাবে।” সঙ্গে এমন সমাজ সচেতনমূলক কাজে পাশে থাকার জন্য শিবসেনার নেতাকে ধন্যবাদও জানান তিনি। আদিত্য ঠাকরেও অক্ষয়ের এমন মহৎ উদ্যোগের প্রশংসা করে জানান, শীঘ্রই ভেন্ডিং মেশিনের সংখ্যা ১০০ ছুঁয়ে ফেলতে হবে।

[পদ্মাবত-এই থামতে নারাজ, বনশালির আরও ৩টি ছবিতে দেখা যাবে রণবীর-দীপিকাকে!]

এর আগে ‘টয়লেট: এক প্রেমকথা‘ ছবির মাধ্যমে অক্ষয় সমাজকে শৌচাগার ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তার কথা বোঝানোর চেষ্টা করেছিলেন। এবার মহিলাদের ঋতুস্রাব নিয়ে সমস্ত ছুৎমার্গ ভেঙে দিতে চান তিনি। সম্প্রতি দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে প্রায় চারশো স্কুল পড়ুয়া নিখরচায় ‘প্যাডম্যান’ দেখানো হয়েছে। উদ্দেশ্য, ঋতুস্রাব নিয়ে সংকীর্ণতা দূর করা। এভাবেই সিনেমাকে সমাজ কল্যাণের মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করে গোটা দেশের মন জয় করছেন বলিউডের খিলাড়ি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement