১৪ মাঘ  ১৪২৯  রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

নৃশংস! গণধর্ষণের পর গোপনাঙ্গে সিগারেটের ছেঁকা, মুম্বইয়ের ঘটনায় অধরা অভিযুক্তরা

Published by: Anwesha Adhikary |    Posted: December 5, 2022 12:38 pm|    Updated: December 5, 2022 2:20 pm

Mumbai woman gangraped, private parts burnt with cigarettes | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গণধর্ষণ করে, গোপনাঙ্গে সিগারেট দিয়ে সই করে গেল ধর্ষকরা। এখানেই না থেমে ধারাল অস্ত্র দিয়ে মহিলার শরীরে গুরুতর আঘাত করে দুষ্কৃতীরা। গোটা ঘটনার ভিডিও তুলে ব্ল্যাকমেল করা হয় ওই মহিলাকে। নিজের বাড়িতেই এহেন ঘটনায় হতচকিত ওই মহিলা ভয়ে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করতে পারেননি। শেষ পর্যন্ত একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সাহায্যে পুলিশের দ্বারস্থ হন নির্যাতিতা। খাস মুম্বইয়ের (Mumbai) এই ঘটনায় অভিযুক্তরা এখনও পলাতক।

জানা গিয়েছে, নির্যাতিতার বয়স ৪২ বছর। মুম্বইয়ের কুর্লা এলাকার বাসিন্দা তিনি। গত বুধবার নিজের বাড়িতে একাই ছিলেন ওই মহিলা। সেই সময়ে আচমকা বাড়িতে ঢুকে আসে তিন আততায়ী। একে একে ওই মহিলাকে ধর্ষণ করে তিন অভিযুক্ত। তারপরে জ্বলন্ত সিগারেট দিয়ে মহিলার গোপনাঙ্গে নিজেদের নাম সই করে তারা। গোটা ঘটনার ভিডিও করে রাখে তিনজন। শেষে ধারাল অস্ত্র দিয়ে নির্যাতিতার বুকে ও হাতে গভীর আঘাত করে তারা। রক্তাক্ত অবস্থায় মহিলাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় তিন অভিযুক্ত।

[আরও পড়ুন: ফৌজদারি মামলা থাকলেই সরকারি চাকরিতে বঞ্চনা নয়, নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের]

তবে পালানোর আগে শাসানি দিয়ে যায় ধর্ষকরা। গোটা ঘটনার ভিডিও দেখিয়ে নির্যাতিতাকে হুমকি দেওয়া হয়, পুলিশের কাছে অভিযোগ জানালে এই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়া হবে। সেই ভয়ে কাউকে কিছু জানাননি ৪২ বছর বয়সি ওই নির্যাতিতা (Mumbai Gangrape)। শেষ পর্যন্ত গোটা ঘটনা জানতে পারেন নির্যাতিতার কয়েকজন প্রতিবেশী। তাঁদের উদ্যোগেই একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে নির্যাতিতার যোগাযোগ হয়। সকলের সাহায্যে রবিবার পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন ওই মহিলা।

প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত তিন যুবক ওই মহিলার বাড়ি সংলগ্ন এলাকারই বাসিন্দা। তবে ঘটনার পর থেকেই পলাতক ওই তিন যুবক। মুম্বই পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, ধর্ষণ, গণধর্ষণ-সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে তিনজনের বিরুদ্ধে। পলাতক অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ। মুম্বইয়ের মতো শহরে নিজেদের বাড়িতেই মহিলারা কেন সুরক্ষিত নন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। 

[আরও পড়ুন: ‘ধর্মীয় স্বাধীনতা অবাধ ধর্মান্তকরণের অধিকার নয়’, সুপ্রিম কোর্টে বলল গুজরাট সরকার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে